বলিউডের ‘ড্রামা কুইন’ রাখি সাওয়ান্ত বলেছেন, আমাকে একবার একটি হোটেলে ডেকেছিলেন হানিপ্রীত। গুরমিত ও হানিপ্রীত হোটেলে এক ঘরে থাকতেন। আমার মতো অনেক মেয়েকেই ছবিতে অভিনয়ের সুযোগ দিতে এভাবে হোটেলে ডাকা হতো। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে এমন তথ্য জানান এ অভিনেত্রী।ভারতের শীর্ষস্থানীয় একাধিক গণমাধ্যম জানিয়েছে, ধর্ষণে অভিযুক্ত হয়ে জেলে যাওয়ার পর থেকে সারা ভারতেই এখন সুপরিচিত ভন্ড ধর্মগুরু গুরমিত রাম রহিম সিং ও তার দত্তক কন্যা হানিপ্রীত সিং। বাবা ও তার মেয়েকে নিয়ে এ পর্যন্ত অনেক বলি সেলিব্রেটিরাই মুখ খুলেছেন। এবার ধর্ষক বাবা ও তার দত্তক কন্যাকে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য রাখি।

রাখি জানান, গুরমিত সিংয়ের কন্যা হানিপ্রীত তাকে ভয় পেতেন। মেসেঞ্জার অব গড’ ছবির সময় ডেরা সচ্চা সৌদা প্রধান গুরমিত রাম রহিম এবং তাঁর দত্তক কন্যা হানিপ্রীত ইনসানের সঙ্গে দেখা হয়েছিল তাঁর। রাম রহিম নাকি রাখির কাজের প্রশংসা করে রাজ্যসভার সাংসদ হওয়ার টিকিট পাইয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন।‘বাবা’র জন্মদিন উপলক্ষে হানিপ্রীতের আমন্ত্রণে একবার ‘বাবা’র গুহায়ও গিয়েছিলেন রাখি। তবে তিনি ডেরায় যাওয়ায় অস্বস্তিতে পড়েছিলেন হানিপ্রীত। গুরমিতের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক দেখে হানিপ্রীত ভেবেছিলেন, তিনি গুরমিতকে বিয়ে করবেন।গুরমিত রাম রহিম তথা ‘রকস্টার বাবা’র নানা কারসাজির কথা ইতিমধ্যেই প্রকাশ্যে এসেছে। সম্প্রতি ধৃত ‘বাবা’কে নিয়ে একটি ছবিও তৈরি হচ্ছে বলিউডে। সেই ছবিতে গুরমিতের দত্তক কন্যা হানিপ্রীতের চরিত্রে অভিনয় করছেন রাখি সাওয়ান্ত। আপাতত জেল হেফাজতে রয়েছেন ডেরা সচ্চা সৌদার প্রধান।অন্যদিকে বিতর্ক তৈরি করতে কম পটু নন বলিউড সেক্স সিম্বল রাখিও।  ইন্ডাস্ট্রির একাংশ তাকে বলিউডের ‘ড্রামা কুইন’ নামেই চেনে। কয়েক দিন আগেই শিরোনামে এসেছিলেন বন্ধু মিকা সিংহকে শ্রীকৃষ্ণের সঙ্গে তুলনা করে। ওই ঘটনায় তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানাও জারি হয়েছিল।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

four × five =