দেশ-বিদেশে আজ মুক্তি পাচ্ছে ভারতীয় পরিচালক সঞ্জয়লীলা বনসালীর বহুল আলোচিত ছবি ‘পদ্মাবত’৷ সুপ্রিমকোর্ট এবং ফিল্ম সেন্সর বোর্ড ছাড়পত্র দিলেও বেশ কয়েকটি উগ্র হিন্দু সংগঠন সাম্প্রদায়িক উস্কানিমূলক দাবি তুলে ছবিটি বন্ধ করার ফতোয়া জারি করেছে৷ হিন্দুত্ববাদীদের অভিযোগ, ছবিটিতে হিন্দু রানী পদ্মাবতীর সঙ্গে মুসলিম রাজা আলাউদ্দিন খিলজির অন্তরঙ্গ দৃশ্য দেখানো হয়েছে,যা ইতিহাসসম্মত নয়। ২০১৬ সালের ২৫ ডিসেম্বর থেকে বিতর্কের শুরু হয়। সেটে আঘাত পান এক চিত্রশিল্পী। পরে তার মৃত্যু হয়। ওই শিল্পীর পরিবারকে ২৭ লাখ রুপি ক্ষতিপূরণও দেয়া হয়। হিন্দু মৌলবাদীদের হামলার আশংকায় সিনেমা হলগুলোতে ব্যপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। পাহারা আর নজরদারিতে ঘাটতি রাখছেনা পুলিশ। গুজরাত, রাজস্থান, মহারাষ্ট্র, হরিয়ানায় গোলমালের আশঙ্কায় জোড়দার করা হয়েছে পুলিশি নজরদারি। ‘পদ্মাবত’ নিয়ে স্পষ্ট বার্তা দিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেছেন, ‘আমাদের রাজ্যে ছবিটি নিয়ে কোনও বাধা নেই। বজরং দল এটা এ নিয়ে শুধু শুধু গোলমাল করছে। যারা হাঙ্গামা করছে, বিজেপির উচিত তাদের নিয়ন্ত্রণে রাখা।’ আসানসোলের মুর্গাশোলের ইদগা মোড়ে ছবিটি বন্ধ করার দাবিতে সভা করেছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। তবে পুলিশ আত্মবিশ্বাসী, বাংলায় ছবিটির অবাধ প্রদর্শনে অসুবিধা হবে না

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   স্বাধীনতার ৪৬ বছরেও সরকার চলচ্চিত্রকে প্রাধান্য দেয়নি

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

4 × five =