আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বাংলাদেশের আদালত স্বাধীনভাবে দায়িত্ব পালন করছেন। সরকার কোন হস্তক্ষেপ করছে না। যার প্রমাণ সরকারের অনেক মন্ত্রী-এমপি ও ছাত্রলীগের অনেক নেতাকর্মীও বর্তমানে কারাগারে রয়েছে। আজ শনিবার দুপুরে সাভারের হেমায়েতপুরে হেমায়েতপুর-মানিকগঞ্জ সিংগাইর আঞ্চলিক সড়কের উন্নয়ন কাজ উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মন্ত্রী এ কথা বলেন। এসময় তিনি আরো বলেন, যদি আদালত স্বাধীন না হতো তাহলে খুনের মামলায় আওয়ামী লীগের এমপি কারাগারে থাকতো না। আদালতের স্বাধীনতায় সরকারের কোন হস্তক্ষেপ নেই।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার দুর্নীতির মামলার কি সাজা হবে এটা আদালতের এখতিয়ার। সাক্ষ্য প্রমাণ ও তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে আদালত সিদ্ধান্ত নেবে। এখানে সরকারের কোনো হাত নেই।
তিনি বলেন, আদালত কি রায় দেবে সেটা তো আদালতের বিষয়। রায় না মেনে আন্দোলনের হুমকি বিএনপি কাকে দিচ্ছে। আদালতের বিরুদ্ধে যারা হুমকি দিতে পারে আমরা মনে করি তাদের হাতে দেশ ও গণতন্ত্র বিচার ব্যবস্থা কোনটাই নিরাপদ নয়।
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, নির্বাচনের আগেই বিএনপি নির্বাচনে জিততে চায়। ২০১৩/১৪ সালের মত নির্বাচনের নামে বিএনপি যদি জালাও পোড়াও করতে চায় তাহলে জনগণেই তাদের প্রতিহত করবে। আওয়ামী লীগে কোন অনুপ্রবেশকারি নেই জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, আগামী রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে দল ও দেশের কাছে যে ব্যক্তি গ্রহণযোগ্য তাকেই মনোনয়ন দেওয়া হবে। সংসদ নির্বাচনে তিন মাস পর পর জরিপ হচ্ছে। যে ব্যক্তি জরিপে এগিয়ে থাকবে তাকেই মনোনয়ন দেওয়া হবে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ডা. এনামুর রহমান, সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম রাজীব, তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফখরুল আলম সমরসহ সড়ক ও জনপদ বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   আজ সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদের পঞ্চম বছরের শুরু

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

1 × four =