আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি আসলে কখন যে কী বলে, সেটা বোঝা খুব কঠিন। তারা দীর্ঘদিন ক্ষমতায় নেই। একটা ক্ষমতার দল ক্ষমতায় না থাকলেই তাদের মধ্যে অস্থিরতা বাড়ে। তাদের তো আন্দোলন-সংগ্রামের অভিজ্ঞতা নেই, ইতিহাস নেই। এই দলটির আন্দোলন করে ক্ষমতায় যাওয়ার সক্ষমতা নেই। তবে তারা আরো ভালো থাকতে পারত, যদি তারা গত পার্লামেন্ট নির্বাচনে আসত।

আজ রোববার দুপুরে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে শিশু লাবিদ আল লিখনের চিকিৎসা সহায়তা দিতে গিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

সংবাদপত্রে খবর দেখে লিখনকে দেখতে যান ওবায়দুল কাদের। তিনি তার পরিবারকে নগদ ৮০ হাজার টাকা দেয়ার পাশাপাশি চিকিৎসার সব খরচ বহনের আশ্বাস দেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি তো আর হেলা-ফেলার দল না, সাংগঠনিকভাবে তারা যতই দুর্বল হোক না কেন। একটা উল্লেখযোগ্য জনগণ তাদেরকে সমর্থন করে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, ফখরুল সাহেব বলেছেন, ১৮ তারিখের সমাবেশে না কি স্কুল-কলেজের ছেলে-মেয়েদের বাধ্য করে আনা হয়েছে। আমি চ্যালেঞ্জ করলাম, কোনো স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা সেখানে ছিল না। সরকারি কর্মচারীদের বাধ্য করে নিয়ে আসা হয়েছে বলেছেন, এটা নির্জলা মিথ্যাচার। কাউকে বাধ্য করে আনার প্রশ্নই উঠে না। যারা এসেছে, তারা স্বতঃস্ফূর্তভাবে এসেছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আবার ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছে, বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট নাকি ছিল। আমি চ্যালেঞ্জ করছি, কোথায় বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট ছিল? আমি তো সেখানে ছিলাম, আমি তো দেখিনি। তিনি প্রমাণ করুন, কোথায় ছিল বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট। শেখ হাসিনা আল্লাহ ছাড়া আর কাউকে পরোয়া করে না, ভয় পায় না।

৭ মার্চের ভাষণ উদযাপনে বিএনপি নেতাদের প্রতিক্রিয়ার জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ৭ মার্চকে তারা ভয় পায়। এই ভাষণকে তারা নিষিদ্ধ করেছিল, সেই ভাষণ যখন আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃতি পায়, তখন থেকে বিএনপির গাত্রদাহ শুরু হয়েছে। তারই প্রকাশ হচ্ছে, ১৮ ও ২৫ তারিখের সমাবেশের পরে তাদের বক্তব্যে।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

three × 2 =