আন্তর্জাতিক শিশু অধিকার বিষয়ক সংগঠন সেভ দ্য চিলড্রেনের আফগানিস্তান কার্যালয়ে হামলা চালিয়েছে বন্দুকধারীরা। বুধবার সকালে দেশটির পূর্বাঞ্চলের জালালাবাদ শহরে এই হামলার ঘটনা ঘটে। এতে কমপক্ষে ২ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো ১৪ জন। ভবনটির মধ্যে এখনো ৫০ ব্যক্তি আটকা পড়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। মধ্যপ্রাচ্যের জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস তাদের নিজস্ব সংবাদ সংস্থা আমাকে হামলার দায় স্বীকার করেছে।

হামলার টার্গেটগুলোকে ‘বৃটিশ ও সুইডিশ প্রতিষ্ঠান’ বলে আখ্যা দেয় তারা।
এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি ও আল জাজিরা। খবরে বলা হয়, সকাল ন’টার দিকে হামলা শুরু হয়। নানগরহর রাজ্যের গভর্নরের মুখপাত্র আতাউল্লাহ খোগানি বলেন, প্রথমে এক আত্মঘাতী হামলাকারী ভবনের প্রবেশপথে গাড়িবোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। পরে হামলাকারীরা ভবনের ভেতরে ঢুকে। এসময় তারা সেনাবাহিনীর পোশাকে ছিল। তিনি বলেন, সংঘর্ষ শেষ হয়েছে। নিরাপত্তা বাহিনী এখন ভবনটি তল্লাশি করছে। মি. খোগানি দু’জন নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেন।
এক প্রত্যক্ষদর্শীর উদ্ধৃতি দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, বন্দুকধারীরা রকেট-চালিত গ্রেনেড দিয়ে ভবনের মূল ফটক উড়িয়ে দেয়। হামলার সময় ভবনের ভেতর অবস্থানকারী মোহাম্মদ আমিন বলেন, তিনি প্রচণ্ড বিস্ফোরণের শব্দ শুনতে পান। এসময় এক হামলাকারীকে গ্রেনেড দিয়ে ভবনের ফটক উড়িয়ে দিতে দেখেন। পরে তিনি জানালা দিয়ে লাফ দিয়ে ভবনের বাইরে চলে আসেন। কয়েকটি সূত্র জানিয়েছে, সংঘর্ষে ২ হামলাকারীও নিহত হয়েছে। সেভ দ্য চিলড্রেন এক বিবৃতিতে সংগঠনের কর্মকর্তাদের নিরাপত্তার বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। এতে বলা হয়, বেসামরিক নাগরিক বা ত্রাণ সংস্থার ওপর হামলা আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। এটি যুদ্ধাপরাধ হিসেবে গণ্য হতে পারে। উল্লেখ্য, ২ দিন আগে কাবুলের একটি হোটেলে হামলা করে তালেবান জঙ্গিরা। এতে ২২ জন নিহত হন।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   উ. কোরিয়ার বিরুদ্ধে নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ প্রশ্নে আজ জাতিসংঘে ভোট

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

16 + sixteen =