‘আমাকে নিয়ে মজা করা বন্ধ করুন।’ সবার প্রতি এ অনুরোধ জানিয়েছেন জেসিয়া ইসলাম। গত বুধবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ওয়েস্টিন হোটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তাঁকে নতুন ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ হিসেবে ঘোষণা দেওয়া হয়। এরপর সবার দৃষ্টি পড়ে তাঁর ওপর। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে জেসিয়া ইসলামের চেহারা আর দাঁত নিয়ে নানা ট্রল করা হয়। এসব ট্রল দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায়। ব্যঙ্গ করে অনেকেই নানা মন্তব্যও করেছেন।

এর পরিপ্রেক্ষিতে জেসিয়া ইসলাম আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘হ্যালো, আপনারা কেমন আছেন। নিশ্চয়ই ভালো আছেন। কিছু পেজ, গ্রুপ আর প্রোফাইল, যারা আমাকে নিয়ে মজা করছেন, তাদের সাবধানতা অবলম্বন করতে বলব। আমার অনুরোধ, সিরিয়াস হোন, সময় নষ্ট করবেন না আর আমাকে নিয়ে মজা করা বন্ধ করুন।’

ফেসবুকে অনেকেই জেসিয়ার ‘দাঁত’ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। কথা বলেছেন তাঁর সৌন্দর্য নিয়েও। জেসিয়া লিখেছেন, ‘আমি হয়তো অনেকের মতো সুন্দর নয়। বিশ্বসুন্দরী ঐশ্বরিয়া রাইয়েরও কিন্তু দাঁতে সমস্যা ছিল। স্বাভাবিক সৌন্দর্যের জন্য তা কিন্তু মোটেই প্রাসঙ্গিক নয়।’

সবার প্রতি জেসিয়ার অনুরোধ, ‘এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ, আমি বিশ্বসুন্দরী প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করতে যাচ্ছি। আপনারা যদি আমাকে ইতিবাচক মনোভাব নিয়ে সমর্থন না দেন, তাহলে আমি কীভাবে সফল হব? আমি সবার ভালোবাসা আর সমর্থন চাই।’

১৮ নভেম্বর চীনের সানাইয়া শহরে অনুষ্ঠেয় ৬৭তম মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ থেকে অংশ নেবেন জেসিয়া ইসলাম।

২৯ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারের নবরাত্রী মিলনায়তনে ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ আয়োজনের গ্র্যান্ড ফিনালেতে প্রথম রানারআপ হন জেসিয়া ইসলাম। পরে অভিযোগ ওঠে, বিচারকদের রায়ে নয়, আয়োজকদের ঘোষণায় এ প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন জান্নাতুল নাঈম। তাঁর বিরুদ্ধে বিয়ের তথ্য গোপনের অভিযোগ আনা হয়। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় জান্নাতুল নাঈমকে দেওয়া সেই খেতাব বাতিল করা হয়। নতুন ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ হন জেসিয়া ইসলাম।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

nineteen − eleven =