ইরানের বিধ্বস্ত হওয়া বিমানের ৩০ আরোহীর লাশ চিহ্নিত করা গেছে। পর্বতারোহী ও উদ্ধারকারী দল দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর পর মঙ্গলবার জানিয়েছে, ৩০টি লাশের মধ্যে ১৫টি শনাক্ত করা সম্ভব হবে।

ধারণা করা হচ্ছে, বিধ্বস্ত বিমানটি হিমবাহের নিচে চাপা পড়েছে। এছাড়া, পর্বতের সাড়ে চার হাজার মিটার উপরে উদ্ধার ও অনুসন্ধান কার্যক্রম মারাত্মক রকমের কঠিন হয়ে পড়েছে। কারণ যেখানে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে পাহাড়ের সে জায়গাটি অত্যধিক ঢালু। পাশাপাশি দুই মিটার উচ্চতার বরফ পড়ে রয়েছে সেখানে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ওই এলাকায় আরো তুষারপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

মঙ্গলবার সাতটি হেলিকপ্টার ও এক শ’ পর্বতারোহী এবং উদ্ধারকারী ওই এলাকায় অনুসন্ধান চালান। হিমালয় বিজয়ী লোকজনও এ দলে রয়েছেন এর আগে, ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী কয়েকটি হেলিকপ্টার নিয়ে ব্যাপক অনুসন্ধানের পর বিমানের ধ্বংসাবশেষ শনাক্ত করা সম্ভব হয়। বিমানটি শনাক্ত করার বিষয়ে আইআরজিসি’র মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল রামেজান শরীফ মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন।

গত রোববার ইরানের অসেমান এয়ারলাইন্সের একটি বিমান ৬৬ জন আরোহী নিয়ে রাজধানী তেহরান থেকে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় ইয়াসুজ শহরে যাওয়ার সময় পার্বত্যাঞ্চলে বিধ্বস্ত হয়। তবে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে বিমানটির ধ্বংসাবশেষ ও যাত্রীদের লাশ উদ্ধার করা কঠিন হয়ে পড়ে।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   ভারতের উচিত চীনের সঙ্গে বন্ধুত্ব স্থাপন আর পাকিস্তানকে শ্রদ্ধা করা চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের সম্পাদকীয়

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

16 − 11 =