ইয়েমেনের বন্দরনগরী এডেনে রোববার সরকারি বাহিনী ও সাউদার্ন ট্রানজিশনাল কাউন্সিল (এসটিসি)’র যোদ্ধাদের মধ্যে তুমুল লড়াইয়ে ১৫ জন নিহত হয়েছে। খবর বার্তা সংস্থা সিনহুয়া’র।
সরকার এডেন প্রদেশে এসটিসি আয়োজিত একটি শান্তিপূর্ণ সমাবেশ নিষিদ্ধ করার পর উভয়পক্ষের মধ্যে এ সংঘর্ষ ঘটে। খবর বার্তা সংস্থা এএফপি’র।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সৌদি সমর্থিত ইয়েমেন সরকারের অনুগত বাহিনীর সঙ্গে এসটিসি যোদ্ধাদের সংঘর্ষে ১৫ জন নিহত ও আরো বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে।
দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনার অভিযোগ এনে প্রেসিডেন্ট আবদু রাব্বু মানসুর হাদিকে বরখাস্ত করার জন্য গত সপ্তাহে এসটিসি বিচ্ছিন্নতাবাদীরা একটি সময়সীমা বেঁধে দেয়। সময়সীমা পার হওয়ার পরই উভয়পক্ষের মধ্যে এই সংঘাত শুরু হয়।
সরকারের পক্ষ থেকে এসটিসি’র অভিযোগগুলো প্রত্যাখ্যান করা হয়।
এডেনের এক বাসিন্দা জানায়, এডেনে প্রেসিডেন্সিয়াল গার্ড বাহিনীর সদস্যরা প্রবেশ করে সরকার বিরোধী বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এতে ১৫ জনের বেশি লোক আহত ও নিহত হয়।
জবাবে এসটিসি যোদ্ধারাও রাস্তায় অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভকারীদের রক্ষা করতে চেষ্টা চালায়।
এ সময় এডেনের খোরমাসকার অঞ্চলে উভয়পক্ষের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধ বেঁধে যায়।
কয়েক ঘন্টার লড়াইয়ের পর সৌদি সমর্থিত সরকারের বেশ কয়েকটি সামরিক ঘাঁটি দখল করে নেয় এসটিসি বাহিনী।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   সঙ্কট সমাধানে মিয়ানমারকে সহায়তার প্রস্তাব জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

7 − three =