যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প অভিযোগ করেছেন, সম্প্রতি জাতিসংঘের আরোপিত নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে উত্তর কোরিয়ায় তেল সরবরাহ করছে চীন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি। উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক অস্ত্র ভা-ার সমৃদ্ধকরণ ইস্যুকে কেন্দ্র করে দেশটির সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক অবনতি হতে হতে একদম তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে। যুক্তরাষ্ট্রের ক’টনৈতিক তৎপরতায় আন্তর্জাতিকভাবে বাণিজ্যিক ও ক’টনৈতিক নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে দেশটির ওপর। সম্প্রতি আরোপ করা হয়েছে আরো নিষেধাজ্ঞা। যাতে উত্তর কোরিয়াতে রপ্তানিকৃত তেলের পরিমাণ শতকরা ৯০ভাগ কর্তন করা হয়েছে।

তবে চীন এই নিষেধাজ্ঞা ভঙ্গ করে উত্তর কোরিয়াকে জ্বালানি তেল সরবরাহ করছে বলে অভিযোগ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প।। স্থানীয় সময় বৃহ¯পতিবার সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারে করা এক টুইটে এমন অভিযোগ করেন ট্রাম্প। লেখেন, ‘একদম হাতেনাতে ধরা! এটা খুবই দুঃখজনক যে চীন এখনো উত্তর কোরিয়াকে তেলের রসদ যোগাচ্ছে। এমনটি হতে থাকলে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে কখনোই ইতিবাচক সমাধান সম্ভব হবে না।’ উল্লেখ্য, উত্তর কোরিয়ায় তেলের আমদানি ৯০ শতাংশ কমিয়ে আনতে গত সপ্তাহে জাতিসংঘের আনা এক নিষেধাজ্ঞার সিদ্ধান্তে সমর্থন জানায় চীন। উত্তর কোরিয়ার ক্রমাগত ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা বন্ধ করতে যুক্তরাষ্ট্রের পৃষ্ঠপোষকতায় ওই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তবে সম্প্রতি এটা প্রতীয়মান হয়েছে যে চীন ওই সিদ্ধান্ত মেনে চলছে না। সম্প্রতি দক্ষিণ কোরিয়ার সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, চীনের কয়েকটি তেলের ট্যাংকার গোপনে উত্তর কোরিয়ার জাহাজে তেল সরবরাহ করেছে। এর পরই চীনের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ আনলেন ট্রাম্প। তবে এ অভিযোগকে সরাসরি অস্বীকার করেছে চীন। এ প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়ের মুখপাত্র রেন গুওকিয়াং বলেন, এ ধরণের কোন কিছুই ঘটছে না। প্রসঙ্গত, উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে চীনের সবচেয়ে বেশি বাণিজ্যিক লেনদেন হয়ে থাকে। তবে জাতিসংঘের সব নিষেধাজ্ঞা মেনেই ওই লেনদেনগুলো করা হচ্ছে বলে অনেক আগে থেকেই দাবি করে আসছে চীন।

আরও পড়ুনঃ   ইরানে এবার সরকার পক্ষের শক্তি প্রদর্শন

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

3 × 5 =