কর ফাঁকি দেওয়ায় দুই বছর আগেই মামলা করা হয় নেইমারের বিরুদ্ধে। ব্রাজিলের কর কর্তৃপক্ষের অভিযোগ, ২০১১ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত পারিবারিক ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে কর ফাঁকি দিয়েছেন নেইমার। এই অভিযোগে ২০১৫ সালে দায়ের করা মামলায় নেইমারের ৫ কোটি ৫৭ লাখ ডলার মূল্যের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছিলেন আদালত।

এবার সেই মামলায় ‘ধোঁকা দেওয়া’র চেষ্টার অভিযোগ তুলে ব্রাজিলের এই ফরোয়ার্ডের বিরুদ্ধে ১২ লাখ ডলার জরিমানা করেছেন ব্রাজিলের আদালত। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৯ কোটি ৬০ লাখ টাকা।

ইএসপিএন জানিয়েছে, নেইমার এবং তার বাবা-মা ছাড়াও আরও তিনটি প্রতিষ্ঠানের ওপর এ জরিমানা ধার্য করা হয়েছে। মাঠের বাইরে ব্রাজিলিয়ান তারকার সবকিছু তারা নিয়ন্ত্রণ করেন বলেই আদালত এই রায় দেন। নেইমার যে পরিমাণ কর ফাঁকি দিয়েছেন, সে তুলনায় জরিমানার অঙ্কটা বেশি নয় বলে জানানো হয়।

রায়ে বিচারক কার্লোস মুতা বলেন, মামলা-প্রক্রিয়ায় নেইমারের ভূমিকা ধোঁকা দেওয়ার মতোই। আদালত মনে করে, নেইমার মামলা-প্রক্রিয়ায় বাধাদানের প্রক্রিয়ায় ছিলেন।

অভিযোগে জানা যায়, বেশ কিছু ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে আয়ের মূল অঙ্ক গোপন করেছেন নেইমার। এতে তার যেখানে ২৭ দশমিক ৫ শতাংশ কর দেওয়ার কথা ছিল, সেখানে এখনও পর্যন্ত ১৫ শতাংশের মতো আদায় করেছেন।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

four + eight =