লাল শাক সবাই নিশ্চয়ই চেনেন। খেতে সুস্বাদু এই লাল শাকে যে কত রকমের স্বাস্থ্যগুণ লুকিয়ে আছে তা হয়তো আপনি জানেন না। অনেকেই খেতে ভালোবাসেন আবার অনেকে লাল শাক পছন্দও করেন না। কিন্তু আমাদের দেহের সুস্থতা বজায় রাখার জন্য লাল শাকের গুরুত্ব অনেক বেশি।

লালশাক রক্তে হিমোগ্লোবিন বাড়ায়। ফলে যাদের রক্তস্বল্পতা রয়েছে, তারা নিয়মিত লালশাক খেলে রক্তস্বল্পতা পূরণ হয়।

তাছাড়া এর অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ক্যানসার প্রতিরোধে সাহায্য করে। লালশাক নিয়মিত খেলে দৃষ্টিশক্তি ভালো থাকে এবং অন্ধত্ব ও রাতকানা রোগ প্রতিরোধ করা যায়।

লালশাক ভিটামিন ‘এ’-তে ভরপুর। লালশাকের ক্যালরির পরিমাণ কম থাকায় ডায়াবেটিস রোগীদের জন্যও লালশাক যথেষ্ট উপকারী। এটি মস্তিষ্ক ও হৃৎপিণ্ডকে শক্তিশালী করে। দাঁতের মাড়ি ফোলা প্রতিরোধ করে। শিশুদের অপুষ্টি দূর করে। শরীরে অতিরিক্ত ক্যালসিয়াম জমে গিয়ে যেসব অসুখ হয়, তা প্রতিরোধ হয়। এ ছাড়া এটি শরীরের ওজন হ্রাস করে। এর মধ্যে রয়েছে আরও প্রচুর স্বাস্থ্য গুণও!

লাল শাকের বিটা-ক্যারোটিন হার্টস্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি হ্রাস করে। আঁশ জাতীয় অংশ খাবার পরিপাকে সহায়তা করে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। ভিটামিন ‘সি’-এর অভাবজনিত স্কার্ভি রোগ প্রতিরোধ করে লালশাক।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   বিভিন্ন রোগসহ চিন্তা থেকে মুক্তি পেতে লেমন অয়েল

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

sixteen − two =