আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার দুর্নীতি মামলার রায় নিয়ে আওয়ামী লীগের কোন কর্মসূচির প্রয়োজন নেই।
তিনি বলেন, আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি আদালত বেগম খালেদা জিয়ার দুর্নীতি মামলার রায় দেবে। এ রায়কে কেন্দ্র করে বিএনপি মাঠ গরম করার চেষ্টা করছে। কিন্তু আমরা বিএনপির ফাঁদে পা দেব না।
সেতুমন্ত্রী কাদের আরো বলেন, ‘আমরা কারো সঙ্গে কোন পাল্টা কর্মসূচি দেব না। কারণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ পরিচালনা করছি। আমরা ঠান্ডা মাথায় যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলা করব।’
ওবায়দুল কাদের রোববার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের দলীয় কার্যালয়ের সামনে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী যুবলীগের উদ্যোগে বিএনপির সন্ত্রাস, নৈরাজ্য ও জঙ্গীবাদী রাজনীতির প্রতিবাদে আয়োজিত এক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি বেগম খালেদা জিয়ার দুর্নীতি মামলার রায় নিয়ে নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে চাইলে জনগণের নিরাপত্তায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী যা যা করার দরকার তাই করবে।
দলীয় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আপনারা বিএনপির উস্কানীর ফাঁদে পা দেবেন না। জনগণের নিরাপত্তা ও জান-মাল রক্ষায় যা করার দরকার আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তা করবে।’
তিনি আরো বলেন, ‘আমরা কোন উস্কানী দেব না। বিএনপির বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির বিষয়ে আমাদের ভাবার দরকার নেই। কারণ, তারা নৈরাজ্যকর পরিবেশ তৈরির চেষ্টা করলে তারা যেমন কুকুর তেমন মুগুর খাবে।’
ঢাকা দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী স¤্রাটের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন ও আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. হারুনুর রশিদ।
সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম মেম্বার মাহবুবুর রহমান হিরণ, মো. ফারুক হোসেন, মুজিবুর রহমান চৌধুরী ও যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন আহমেদ মহি।
তিনি বলেন, আমরা কারো সঙ্গে পাল্টাপাল্টি কোন কর্মসূচিতে যাব না। এ মামলার রায়কে কেন্দ্র করে মাঠ দখলে রাখার জন্য আমাদের কোন দলীয় কর্মসূচির প্রয়োজন নেই।
এ বিষয়ে তিনি আরো বলেন, আমরা বেগম খালেদা জিয়ার দুর্নীতি মামলার রায় নিয়ে সতর্ক থাকব। আইন-শৃঙ্খলার রক্ষাকারী বাহিনী যে কোন উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে।
বিএনপির দলীয় গঠনতন্ত্র পরিবর্তনের কথা উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি তাদের দলীয় গঠনতন্ত্র পরিবর্তন করে দুর্নীতি মামলায় আদালতের সাজা দেওয়ার আগেই বেগম খালেদা জিয়াকে দোষী সাব্যস্ত করেছে।
দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়া দন্ডিত হওয়ার ভয় থেকেই বিএনপি তাদের গঠনতন্ত্র পরিবর্তন করেছে উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, বিএনপির গঠনতন্ত্রের ৭ ধারা পরিবর্তন করায় আদালতে দন্ডিত, উম্মাদ, দেউলিয়া, দুর্নীতিগ্রস্ত ও কুখ্যাত কোন লোকের সদস্য পদ লাভের ক্ষেত্রে বাধা রইল না।

আরও পড়ুনঃ   ‘আদালতের রায়ে নির্বাচন স্থগিত হওয়ায় আমরাও হতাশ’

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

one × 3 =