গর্ভনিরোধক ছাড়া নিরাপদ- এমন এক সময় ছিল যখন জন্ম নিয়ন্ত্রনের জন্য কোন কৃত্রিম পদ্ধতি ছিল না। তবুও মানুষ বিভিন্ন প্রাকৃতিক পন্থায় জন্ম নিয়ন্ত্রণ করতো।

এখন যদিও অনেক অপশন আছে তারপরেও বিশ্বজুড়ে অনেক দম্পতি প্রাকৃতিক উপায়েই জন্ম নিয়ন্ত্রণ করতে সাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। এই বিষয়ে আজকের এই লেখা

জন্ম নিয়ন্ত্রণের জন্য সকলেই গর্ভনিরোধক ট্যাবলেট কিংবা কনডমের উপরই ভরসা করেন৷ কিন্তু, আধুনিক পদ্ধতি ছাড়াই সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক ভাবে জন্ম নিয়ন্ত্রণ করা যেতে পারে৷ এই সম্পর্কে ধারনা থাকলে চিকিৎসকেরা কাছেও যাওয়ার প্রযোজন পড়ে না৷

মহিলাদের স্বাভাবিক ঋতুচক্র প্রাকৃতিক ভাবে নির্ধারিত৷ এতে এমন কিছুদিন রয়েছে, যাকে নিরাপদ দিন বা সেফ পিরিয়ড বলা হয়৷ এই দিন গুলিতে সহবাস করলেও গর্ভধারণের ঝুঁকি থাকে না৷ সেফ পিরিয়ডের দিনগুলিও প্রকৃতিগত ভাবে নির্দিষ্ট৷ এই কারণেই একে প্রাকৃতিক পরিবার পরিকল্পনা বলা যেতেই পারে ৷

চিকিৎসকেরা এতে অনেক সময় ক্যালেন্ডার পদ্ধতিও বলে থাকেন৷ এই পদ্ধতি কার্যকর করতে অবশ্যই জানা দরকার ঋতুচক্রের নিরাপদ দিন কোনগুলি৷এই পদ্ধতির জন্য সবার আগে জানতে হবে মাসিক ঋতুচক্র নিয়মিত হয় কিনা৷ হলে তা কত দিন অন্তর হয় ৷

সবচেয়ে কম যত দিন পর পর মাসিক হয়, তা থেকে ১৮ দিন বাদ দিতে হবে৷ পিরিয়ড শুরুর প্রথম দিন থেকে এই দিনটিই হল প্রথম অনিরাপদ দিন৷

আবার সবচেয়ে বেশি যতদিন পরপর পিরিয়ড হয়, তা থেকে ১০ দিন বাদ দিলে মাসিক শুরুর প্রথম দিন থেকে এই দিনটিই হল শেষ অনিরাপদ দিন৷আর যদি এই প্রক্রিয়া সহজ মনে না হয় তাহলে অনাকাঙ্খিত গর্ভধারন রোধ করতে জরুরী গর্ভনিরোধক পিল ব্যবহার করুন।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

20 + 9 =