গাজীপুর: গাজীপুরের কালীগঞ্জে সনাতন ধর্মের এক নারীর (৪০) বাড়িতে ঢুকে ধর্ষণের চেষ্টা করায় তিন সন্তানের জনক অলিউল্লাহ (৪৫) নামের স্থানীয় এক যুবকের পুরুষাঙ্গ কিটে দিয়েছে ওই নারী শ্রমিক। শুক্রবার দিবাগত রাত আনুমানিক ২টার দিকে উপজেলার বক্তারপুর ইউনিয়নের ব্রাহ্মনগাঁও গ্রামের আখাইলা পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ওই নারী বিষয়টি মৌখিকভাবে কালীগঞ্জ থানায় জানিয়েছেন। পুরুষাঙ্গ হারানো ওই যুবক একই এলাকার মফিজ উদ্দিনের ছেলে। বিষয়টি নিশ্চিত করে ওই নারী শীর্ষনিউজকে বলেন, স্বামী মাছ ধরাসহ যখন যা কাজ পান তা করেন। দুই সন্তান নিয়ে বড় অভাব অনটনের সংসার। তাই সংসারে স্বচ্ছলতা ফিরাতে নিজেও কালীগঞ্জ সদরের মূলগাঁও এলাকায় অবস্থিত একটি কারখানায় জুস, এনার্জি ডিংস ও দুধ-লাচ্ছি প্ল্যান্টে কাজ করি। গত দুই-তিনদিন ধরে বগলে ফোঁড়া নিয়ে ভুগছি। কিন্তু অর্থের অভাবে চিকিৎসা করাতে না পেরে কাজে না গিয়ে বাড়িতেই ছিলাম। তিনি বলেন, শুক্রবার রাতে ঘরের এক রুমে সন্তান ও অন্য রুমে আমি ঘুমিয়ে ছিলাম। আর স্বামী বাড়ির পাশে বেলাই বিলে মাছ ধরতে যায়। ঘরের জানালাটা ভাঙা থাকায় প্রতিদিন একটি দা নিরাপত্তার জন্য ঠিকা হিসেবে দিয়ে রাখি। তিনি জানান, রাত দুইটা থেকে আড়াইটার দিকে জানালা দিয়ে কেউ ঘরে প্রবেশের চেষ্টা করলে, টের পেয়ে টর্চ লাইট ধরে জিজ্ঞেস করি কে? তখন সে জানায় আমি অলি। তখন সে আমাকে অর্থের লোভ দেখিয়ে দরজা খুলে ঘরে ঢুকাতে বলে। এ সময় অলি ঘরের দরজায় ধাক্কা দিলে তা নরবড়ে থাকায় এমনিতে খুলে যায়। পরে সে ঘরে ঢুকে আমাকে তার গোপনাঙ্গে তেল লাগিয়ে দিতে বলে। তখন কৌশল করে তাকে বিছানায় শুতে বলি। এবং সুকেস (ঘরে থাকা কাঠের আলমারি) এর নিচ থেকে ব্লেড আনতে যাই, তখন অলি বলে তুমি কী খুঁজ, তখন আমি বলি ভয়ের কিছু নেই, তেলের বোতল খুঁজতেছি। ওই নারী আরো জানান, পরে বাম হাতে ব্লেড নেই সাথে তেলের বোতলটাও আনি। এসময় তেল লাগানোর কথা বলে ব্লেড দিয়ে গোপনাঙ্গ কেটে দেই। তখন সে জোরে চিৎকার দিয়ে ঘর থেকে বেরিয়ে গেলে আমি ঘুমন্ত ছেলেকে ডেকে তুলে বিষয়টি জানালে সেও ভয়ে চিৎকার করে। এ সময় অলির যন্ত্রণায়-চিৎকারে তার চাচা-চাচী ছুটে আসে। তখন তাদের বলি যে, আমি অলির গোপনাঙ্গ কেটে দিয়েছি। পরে অলিকে তারা উদ্ধার করে ঢাকার একটি হাসপাতালে নিয়ে যায়। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, কাজে আসা-যাওয়ার পথে অলি প্রায় সময় অর্থের লোভ দেখিয়ে কু-প্রস্তাব এবং নানাভাবে আমাকে হুমকি-দামকি দিত। গত প্রায় তিন মাস আগে রাতে কাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে আমাকে টানা-হেচড়া করে জঙ্গলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে অলিউল্লাহ। পরে আমার ডাকচিৎকারে আশপাশের মানুষ ছুটে আসলে সে পালিয়ে যায়। বিষয়টি স্থানীয় চেয়ারম্যান-মেম্বার ও অলির পরিবারকে জানালেও তারা উল্টো আমাকে দোষারোপ করতো। আর প্রমাণ চাইতো। বখাটে ও মাদক সেবনকারী অলি এর আগে এক নারীকে ধর্ষণের চেষ্টা এবং সরকারপাড়া এলাকার এক গৃহবধূর গলা থেকে স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নিয়েছে বলেও জানান ওই নারী শ্রমিক। বক্তারপুর ইউনিয়নের (৪নং ওয়ার্ড) ব্রাহ্মনগাঁও গ্রামের মেম্বার মো. নুরুল ইসলাম জানান, অলিউল্লাহ সারাদিন কোনও কাজ কর্ম করতো না। শুধু ঘুরে বেড়াতো, তার পেশা তাস ও জুয়া খেলা। এর আগে কাজে আসা-যাওয়ার পথে অলি ওই নারীকে রাস্তায় অশালিন আচরণের কথা আমাদেরকে এবং অলির পরিবারকে অবগত করেছে। কিন্তু পরিবারের পক্ষ থেকে কোনও ব্যবস্থা না নেয়ায় হয়তো ওই নারী নিজেই এই ব্যবস্থা নিয়েছেন। কালীগঞ্জ থানার ওসি আলম চাঁদ বলেন, এ ব্যাপারে থানায় এসে ওই নারী মৌখিকভাবে জানিয়েছে। তবে লিখিত কোনও অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে ঘটনা তদন্ত করে দেখা হবে। তবে অলিউল্লাহকে কোন হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে তা তিনি জানাতে পারেননি

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

eleven − three =