চট্টগ্রাম মহানগরীর বাকলিয়া থানার রাজাখালী এলাকায় এনামুল হক মানিক (২৭) নামে এক ছাত্রলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যার চেষ্টা করেছে এক সন্ত্রাসী। গতকাল ভোর ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
খবর পেয়ে মানিকের ভাই আরজু ছুটে এসে গুরুতর আহত মানিককে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নিয়ে যান। মানিক ১৮ নম্বর পূর্ব বাকলিয়া ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক বলে জানিয়েছেন আরজু। আরজু জানান, বুধবার রাত তিনটার দিকে বন্ধুর বাড়ি থেকে ফেরার পথে এলাকার বখাটে সন্ত্রাসী রমজান (৪০) মানিককে বুকে গুলি করে পালিয়ে যায়। গুলিবিদ্ধ হওয়ার পর মানিক মুঠোফোনে খবর দিলে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে আনা হয়।

ওই সময় রমজান গুলি করেছে বলে জানায় মানিক।
আরজু বলেন, রমজানের সঙ্গে মানিকের কোনো শত্রুতা নেই। কিন্তু কেন কী কারণে রমজান মানিককে গুলি করেছে সেটা তার জানা নেই। মানিক সুস্থ হয়ে না ওঠা পর্যন্ত গুলি করার কারণ সম্পর্কে সঠিকভাবে কিছুই বলা সম্ভব নয় বলে জানান তিনি। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জহিরুল ইসলাম জানান, বুকে গুলিবিদ্ধ  এনামুল হক মানিককে ভোর ৪টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। হাসপাতালের ক্যাজুয়াল্টি বিভাগে তিনি বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।
বাকলিয়া থানার ওসি প্রণব চৌধুরী বলেন, বুধবার দিনগত রাতে রাজাখালী এলাকায় বন্ধুর বাসা থেকে পায়ে হেঁটে বাসায় ফিরছিলেন মানিক। এ সময় রমজান নামে এক সন্ত্রাসী তাকে পেছন থেকে ডাক দেয়। কাছে গিয়ে কিছু বলার আগে রমজান মানিককে গুলি করে পালিয়ে যায়।
তিনি বলেন, প্রাথমিক তদন্তে মনে হচ্ছে, পরিকল্পিতভাবে মানিককে হত্যার উদ্দেশ্যে এই গুলি করা হয়েছে। পুলিশ সন্ত্রাসী রমজানকে খুঁজছে। তাকে পেলে ঘটনার রহস্য মিলবে বলে মত প্রকাশ করেন তিনি।
চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনি বলেন, মানিক বাকলিয়া ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক। সে বাকলিয়া এলাকায় জামায়াতে ইসলামী ও মাদক বিরোধী বিভিন্ন কর্মসূচির পাশাপাশি বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অতিরিক্ত ফি আদায়ের বিরুদ্ধে আন্দোলন করে আসছে।
এসব ঘটনায় একটি মহল তার ওপর ক্ষিপ্ত ছিল। ওই মহলটি পরিকল্পিতভাবে রমজানকে দিয়ে এ ঘটনাটি ঘটিয়ে থাকতে পারে বলে জানান নুরুল আজিম রনি।

সুত্রঃ মানব জমিন

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

13 − four =