জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র জুবায়ের আহমেদ হত্যা মামলায় পাঁচ জনের ফাঁসির রায় বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট। আজ বুধবার  হত্যার ডেথ রেফারেন্স ও আপিলের ওপর রায় ঘোষণা করেন বিচারপতি ভবানী প্রসাদ সিংহ ও বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলামের হাইকোর্ট বেঞ্চ। ৯ জানুয়ারি এ মামলার শুনানি শেষ  হয়। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) ইংরেজি বিভাগের ছাত্র জুবায়ের আহমেদ হত্যা মামলায় মামলায় ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে পাঁচজনকে মৃত্যুদণ্ড ও ছয়জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছিলেন নিম্ন আদালত।
জুবায়ের হত্যা মামলায় বিচার শেষে ঢাকার ৪ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল ২০১৫ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি রায় দেন। পাঁচজনকে মৃত্যুদণ্ড ও ছয়জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়। এ ছাড়া দুজনকে খালাস দেওয়া হয়।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন প্রাণিবিজ্ঞান বিভাগের আশিকুল ইসলাম, খান মোহাম্মদ রইছ ও জাহিদ হাসান, দর্শন বিভাগের রাশেদুল ইসলাম রাজু এবং সরকার ও রাজনীতি বিভাগের মাহবুব আকরাম। এদের মধ্যে রাশেদুল ইসলাম ছাড়া অন্য চারজন পলাতক।
নিজ দলীয় প্রতিপক্ষ ২০১২ সালের ৮ জানুয়ারি জুবায়েরকে কুপিয়ে আহত করে। তাকে প্রথমে সাভারের এনাম মেডিক্যাল হাসপাতালে এবং পরে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হলে পরদিন ৯ই জানুয়ারি মারা যান। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সে সময়কার রেজিস্ট্রার হামিদুর রহমান বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় হত্যা মামলা করেন।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   মোস্তাফা জব্বারকে মন্ত্রী করায় তাঁর নিজ জেলা নেত্রকোনায় আনন্দ মিছিল

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

5 − five =