জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র জুবায়ের আহমেদ হত্যা মামলায় পাঁচ জনের ফাঁসির রায় বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট। আজ বুধবার  হত্যার ডেথ রেফারেন্স ও আপিলের ওপর রায় ঘোষণা করেন বিচারপতি ভবানী প্রসাদ সিংহ ও বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলামের হাইকোর্ট বেঞ্চ। ৯ জানুয়ারি এ মামলার শুনানি শেষ  হয়। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) ইংরেজি বিভাগের ছাত্র জুবায়ের আহমেদ হত্যা মামলায় মামলায় ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে পাঁচজনকে মৃত্যুদণ্ড ও ছয়জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছিলেন নিম্ন আদালত।
জুবায়ের হত্যা মামলায় বিচার শেষে ঢাকার ৪ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল ২০১৫ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি রায় দেন। পাঁচজনকে মৃত্যুদণ্ড ও ছয়জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়। এ ছাড়া দুজনকে খালাস দেওয়া হয়।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন প্রাণিবিজ্ঞান বিভাগের আশিকুল ইসলাম, খান মোহাম্মদ রইছ ও জাহিদ হাসান, দর্শন বিভাগের রাশেদুল ইসলাম রাজু এবং সরকার ও রাজনীতি বিভাগের মাহবুব আকরাম। এদের মধ্যে রাশেদুল ইসলাম ছাড়া অন্য চারজন পলাতক।
নিজ দলীয় প্রতিপক্ষ ২০১২ সালের ৮ জানুয়ারি জুবায়েরকে কুপিয়ে আহত করে। তাকে প্রথমে সাভারের এনাম মেডিক্যাল হাসপাতালে এবং পরে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হলে পরদিন ৯ই জানুয়ারি মারা যান। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সে সময়কার রেজিস্ট্রার হামিদুর রহমান বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় হত্যা মামলা করেন।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   একই দিনে সরকার ও বিরোধীপক্ষের দুই নেতা আহমদ শফীর সঙ্গে দেখা করে

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

2 × 2 =