কেউ কৈশোর পেরিয়ে কুড়ির কোঠায় পৌঁছেই পেয়ে যায় জীবনসঙ্গী। কারও মনের মানুষ খুঁজতে খুঁজতে চল্লিশ পেরিয়ে যায়। বিয়ের কি কোনও বয়স হয়? না, সত্যিই হয়ত হয় না।

বৈজ্ঞানিকরা কিন্তু জানাচ্ছেন, বিয়ের বয়স না থাকলেও বিয়ে কতটা সফল হবে তা অনেকটাই নির্ভর করছে কত বছর বয়সে বিয়ে করছেন তার উপর।

উটাহ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক নিকোলাস এইচ উলফিঙ্গার জানাচ্ছেন, যারা ২৮ থেকে ৩২ বছর বয়সের মধ্যে বিয়ে করেন তাদের বিচ্ছেদের সম্ভাবনা সবচেয়ে কম। এই গবেষণার জন্য উলফিঙ্গার ন্যাশনাল সার্ভে অব ফ্যামিলি গ্রোথের ২০০৬-২০১০ ও ২০১১-২০১৩ পর্যন্ত তথ্য খতিয়ে দেখেন।

সেই আপসাইড-ডাউন বেলকার্ভ দেখে উলফিঙ্গার জানান, বয়ঃসন্ধি থেকে যত আমরা প্রাপ্তবয়স পেরিয়ে মধ্য কুড়ি ছাড়িয়ে যাই, বিবাহ বিচ্ছেদের সম্ভাবনা ততই কমতে থাকে। ত্রিশের কোঠায় যারা বিয়ে করেন তারা অনেক বেশি প্রাপ্তমনস্ক যেমন হন, তেমনই আর্থিক ভাবেও সফল হন।

এই সময় যোগ্য সঙ্গী খুঁজে পাওয়া এবং সঙ্গী নির্বাচন করাও অনেক সহজ হয়। আবার মধ্য তিরিশ পেরিয়ে যতই আমরা চল্লিশের কোঠায় পৌঁছই, ততই বাড়তে থাকে বিচ্ছেদের সম্ভাবনা। ৩২ বছর বয়সের পর বিয়ে করলে প্রতি বছরে বিচ্ছেদের সম্ভাবনা পাঁচ শতাংশ করে বেড়ে যায়।

উলফিঙ্গারের গবেষণার ফলাফলের সঙ্গে মিলে গিয়েছে ইনস্টিটিউট অব ফ্যামিলি স্টাডিজের সমীক্ষার রিপোর্টও।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

3 × one =