তথ্য প্রযুক্তি খাতে ২০২১ সালের মধ্যে ২০ লাখ তরুণ-তরুণী চাকরি পাবে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ। এজন্য  সরকার প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করবে।

আজ মঙ্গলবার সচিবালয়ে তথ্য অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী। আগামী ৬ থেকে ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত অনুষ্ঠেয় ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৭’ বিষয়ে জানাতে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এ সময় তথ্য মন্ত্রী হাসানুল হক ইনু উপস্থিত ছিলেন।

পলক বলেন, আইসিটি (তথ্য প্রযুক্তি বিভাগ) বিভাগ প্রশিক্ষণ এবং ইন্টার্নশিপের ব্যবস্থা করবে। এর ফলে প্রশিক্ষণপ্রাপ্তরা দেশ-বিদেশের বিভিন্ন কোম্পানিতে আউটসোর্সিং করতে পারবে। সেজন্য আমাদের কাজ চলছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সারা বাংলাদেশে আমরা ২৮টি আইটি পার্ক নির্মাণের কাজ করছি এবং সেখানে আগামী তিন বছরে তিন লাখ জনকে প্রশিক্ষণ দিবো। যার মধ্য দিয়ে ২০২১ সাল নাগাদ ২০ লাখ তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান নিশ্চিত করবো।

তিনি বলেন, আমাদের দেশে কর্মসংস্থান একটা বড় ইস্যু। ১৬ কোটি মানুষের দেশে প্রায় ৭০ ভাগ তরুণ। বিপুল শিক্ষিত তরুণদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা সরকারের দায়িত্ব।

২০০৮ সালে ইন্টারনেট গ্রাহকের সংখ্যা ৮ লাখেরও কম ছিল। ৯ বছরের ব্যবধানে এখন ৮ কোটি ছাড়িয়েছে। আর মোবাইল সংযোগের সংখ্যা ১৪ কোটি ছাড়িয়েছে বলে জানান পলক।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা আইটিকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছি। ২৬ মিলিয়ন ডলারের যে রপ্তানি নিয়ে আমরা ২০০৮ সালে শুরু করেছিলাম সেটা এখন বেড়ে প্রায় ৮০০ মিলিয়ন ছাড়িয়ে গেছে। আমাদের টার্গেট হচ্ছে ২০১৮ সালের মধ্যে বিলিয়ন ডলার অতিক্রম এবং ২০২১ সালের মধ্যে পাঁচ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করা।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

2 + 3 =