দক্ষিণ কোরিয়ায় একটি হাসপাতালে আজ শুক্রবার আগুন লাগার ঘটনায় ৪১ জন মারা গেছে। সে দেশে গত এক দশকে এটি সবচেয়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনা।

এ ঘটনায় ৭০ জনের বেশি মানুষ দগ্ধ হয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার মিরিয়াং শহরে এই ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে। দেশটির রাষ্ট্রীয় দমকল সংস্থা ন্যাশনাল ফায়ার এজেন্সি জানায়, ছয়তলা ভবনের হাসপাতালটিতে অগ্নিকাণ্ডে আহত লোকজনের মধ্যে ১৩ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। ৬১ জন সামান্য আহত হয়েছে। নিহত মানুষের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন এ সংস্থার এক কর্মকর্তা।

ন্যাশনাল ফায়ার এজেন্সির প্রধান চোই ম্যানউ বলেন, ‘দুজন নার্স বলেছেন তাঁরা হঠাৎ করে হাসপাতালের জরুরি কক্ষে আগুন জ্বলতে দেখেন।’ তিনি বলেন, আগুন লাগার পর সব রোগীকে বের করে আনা হয়েছে। তবে হাসপাতালের চতুর্থ তলার নিবিড় পরিচর্যা ইউনিটে যে ১৫ রোগী ছিল, তাদের বের করে নিয়ে আসতে বেশ সময় লেগে যায়।

সেজং হাসপাতালে রোগী, চিকিৎসক, নার্সসহ ২০০ জন ছিল।

এই অগ্নিকাণ্ডের হতাহত ব্যক্তিদের ঘটনায় দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জে-ইন শোক প্রকাশ করেছেন। অগ্নিকাণ্ডের পরই জরুরি বৈঠক ডাকেন প্রেসিডেন্ট।

এক মাস আগে দক্ষিণ কোরিয়ার একটি ব্যায়ামাগারে অগ্নিকাণ্ডে ২৯ জন নিহত হয়। ২০০৮ সালে এক ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নিহত হয় ৪০ জন শ্রমিক।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   'ট্রাম্পের হঠকারী সিদ্ধান্তের মাধ্যমে ইসরাইলের পতন শুরু' ইসমাইল হানিয়া

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

nineteen − seven =