ধর্ষণের অপরাধে নয় বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে ব্রাজিলিয়ান তারকা ফুটবলার রবিনহোকে। ইতালির এক আদালত এই শাস্তি ঘোষণা করেছে। ২০১৩ সালে ২২ বছর বয়সী এক আলবেনিয়ান নারীকে একটি নাইটক্লাবে গণধর্ষণ করেন রবিনহোসহ আরও পাঁচ ব্রাজিলিয়ান ।

শাস্তি ঘোষণার সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন ৩৩ বছর বয়সী রবিনহো। এসময় আইনজীবীর মাধ্যমে তিনি আদালতকে অবহিত করেছেন যে তিনি দোষী নন। আপিলের প্রক্রিয়া শেষ না হওয়া পর্যন্ত তার দণ্ড স্থগিত থাকবে বলে আদেশ দিয়েছে আদালত।

২০১৫ পর্যন্ত এসি মিলানে খেলেছেন এই তারকা স্ট্রাইকার। এছাড়াও রিয়াল মাদ্রিদ ও অ্যাতলেটিকো মিনেইরোর হয়েও মাঠ মাতিয়েছেন তিনি। জাতীয় দলের হয়ে ১০০ এর বেশি ম্যাচ খেলা এই ফুটবলার আদালত থেকে বের হয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে এক পোষ্ট দেন সেখানে লেখেন, ‘আমি এই অভিযোগের জবাব দিয়েছি। আমি অপরাধি নই। আমরা পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছি। আইনগতভাবেই নিজেকে প্রমাণ করবো।’

সান্তোসের হয়ে ক্যারিয়ার যখন শুরু করা রবিনহোকে অনেকেই ‘নতুন পেলে’ বলেও অভিহিত করেছেন। রিয়াল মাদ্রিদে চার মৌসুমে দুটি লা লিগা জেতেন। ২০০৮ সালে ইংলিশ রেকর্ড ৩২.৫ মিলিয়ন পাউন্ডে ম্যানচেস্টার সিটিতে যোগ দেন। এসি মিলানের হয়ে সিরি আ জেতেন। ২০১৪ সালে আবারও সান্তোসে ফেরেন। ২০১৫ সালে চীনের গুয়াংঝু এভারগ্রান্ডেতে ছয় মাস খেলার পরে আবার ব্রাজিলের অ্যাটলেটিকো মিনেইরোই ফিরে যান।

শুধু এই ঘটনাই নয়, এর আগেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার উদ্দাম জীবন যাপনের বিভিন্ন ছবি পোস্ট করে সমালোচনায় পড়েছেন রবিনহো। নারীদের সাথে অধিক সময় কাটানো, নৈশক্লাব এসব যেন তার দৈনন্দিন জীবনেরই অংশ ছিল।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   'খেলবো তো জেতার জন্যই'

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

eight + 1 =