তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান বলেছেন, সিরিয়ার সঙ্গে তার দেশের যে সীমান্ত রয়েছে তা পুরোপুরি সন্ত্রাসীমুক্ত করা হবে। মার্কিন সমর্থিত কুর্দি গেরিলাদের বিরুদ্ধে তুরস্কের সামরিক বাহিনী ৯ দিন আগে অভিযান শুরু করেছে। সিরিয়ার কুর্দি গেরিলাদেরকে তুরস্ক সন্ত্রাসী মনে করে।

গতকাল রোববার তুর্কি প্রেসিডেন্ট এক বক্তৃতায় বলেছেন, কুর্দি গেরিলা গোষ্ঠী পিপল’স প্রোটেকশন ইউনিট বা ওয়াইপিজির বিরুদ্ধে আফরিন এলাকার চলমান অভিযান বাড়ানো হতে পারে।

তিনি বলেন, ‘ধীরে ধীরে আমরা আমাদের পুরো সীমান্ত পরিষ্কার করব।’

অভিযান নিয়ে আমেরিকা ও তুরস্কের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে, তুরস্কের সামরিক বাহিনী বলেছে, তারা জেবেল বুরসায়া পাহাড় দখল করে নিতে সক্ষম হয়েছে। তুর্কি গণমাধ্যম এ পাহাড়কে খুবই গুরুত্বপূর্ণ অবস্থান হিসেবে উল্লেখ করে আসছিল। ব্রিটেনভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস এ খবর নিশ্চিত করেছে।

এ পাহাড়ের কাছেই সিরিয়ার আজাজ শহর অবস্থিত। সংস্থাটি জানিয়েছে, গতকাল তুর্কি বিমান হামলায় আফরিনের এক পরিবারের তিন সদস্য নিহত হয়েছেন। এছাড়া, একটি প্রাচীন মন্দিরও ধ্বংস হয়েছে।

অন্যদিকে, কুর্দি গেরিলা প্রভাবিত সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ফোর্সেস বা এসডিএফ বলেছে, তুর্কি সেনাদের সঙ্গে মারাত্মক সংঘর্ষ চলছে। কুর্দি নেতারা তুর্কি অভিযানের উপযুক্ত জবাব দেয়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   উ. কোরিয়ার বিরুদ্ধে ট্রাম্পের নতুন আদেশ

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

eighteen − 16 =