নারী-মদে আসক্ত মিয়ানমার সেনাপ্রধান!

রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের রক্ত নিয়ে হোলি খেলা মিয়ানমারের সেনাপ্রধান মিন অং হিলাইং একজন নারী আসক্ত ব্যক্তি। খুবই নোংরা ও অসৎ চরিত্রের অধিকারী। তিনি পরনারী ও মদে ভয়াবহভাবে আসক্ত।

কমপক্ষে ৬ জন সুন্দরী নারী রয়েছে যাদের সঙ্গে সেনাপ্রধান শারীরিক সম্পর্ক চালিয়ে যান। পাশাপাশি নিয়মিত মদে চুর হয়ে থাকেন মিয়ানমার আর্মির সিনিয়র জেনারেল পদমর্যাদার এই কর্মকর্তা।

মিয়ানমারের কোনো গণমাধ্যম বিশ্বের অন্যতম স্বেচ্ছাচারী ও একগুঁয়ে স্বভাবের এই সেনাপ্রধানের নারী কেলেংকারীর খবর প্রকাশ করার সাহস না পেলেও সেই কাজটিই করেছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী সাপ্তাহিক ‘ দ্যা নিউজ উইক’।

গোটা বিশ্ব মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নিধনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানালেও কোনো কথাই কানে নিচ্ছেন না সেনা প্রধান মিন অং হিলাইং। উপরন্ত রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার ডাক দিয়েছেন। হিংস্র ও মানবতাবিরোধী হিসেবে অভিযুক্ত করে সেনা প্রধান হিলাইংয়ের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে তাই কৌতুহল বেড়েছে সাধারণের মধ্যে।

শেষ অবধি হিলাইংয়ের সেই ব্যক্তিগত জীবনের খবর সোমবার প্রকাশ করেছে ‘দ্যা নিউজ উইক’। প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, ব্যক্তিগত জীবনে হিলাইং খুবই নোংরা ও অসৎ চরিত্রের অধিকারী। তিনি মদ ও পরনারীতে ভয়াবহভাবে আসক্ত। অন্তত ছয়জন অতি সুন্দরী নারীর সঙ্গে তার অবৈধ শারীরিক সম্পর্ক রয়েছে।

সেনাপ্রধান মিন অং হিলাইংয়ের বিরুদ্ধে নারী কেলেংকারির খবর ফাঁসসহ তার ব্যক্তিগত জীবনের ওপর বিশদ প্রতিবেদন প্রকাশ করে ‘দ্যা নিউজ উইক’। খবরে বলা হয়েছে, সেনাপ্রধান পরনারী ও মাদকে আসক্ত। তার অন্তত ৬ জন সুন্দরী নারীর সঙ্গে শারিরীক সম্পর্ক রয়েছে। যদিও বিষয়টি নিয়ে মিয়ানমারের কোনো গণমাধ্যম কিছু লিখতে সাহস পায়নি বলেও দাবি করেন নিউজ উইকের প্রতিবেদক।

উল্লেখ্য, মিয়ানমারের আরাকান রাজ্যে রোহিঙ্গাদের পুড়িয়ে ও গুলি করে হত্যা, ধর্ষণ, ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দিয়ে ভিটেমাটি থেকে উচ্ছেদ করে বিশ্বজুড়ে সমালোচিত সেনাপ্রধান মিন অং হিলাইং। মিয়ানমার আর্মির সিনিয়র জেনারেল পদমর্যাদার এই কর্মকর্তার ব্যক্তিগত জীবনের নানা দিক তুলে ধরে এই প্রথম প্রতিবেদন প্রকাশ করলো ‘দ্যা নিউজ উইক’।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

5 × 3 =