দেশে এখন নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে বিএনপি ৮০ শতাংশ ভোট পাবে বলে দাবি করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, বর্তমান সরকারকে আর ক্ষমতায় দেখতে চায় না সাধারণ মানুষ। তাই জনগণকে সঙ্গে নিয়ে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে সরকারকে বাধ্য করা হবে। আর নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে বিএনপি ৮০শতাংশ ভোট পাবে। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৮২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আজ বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট বার অডিটোরিয়ামে বিএনপি আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ দাবি করেন। সভাপতির বক্তব্যে মির্জা আলমগীর বলেন, এই অচলায়তন আমাদের ভেঙে ফেলতে হবে।

আমরা আর কোনোমতেই এই গণতন্ত্রবিরোধী শক্তিকে ক্ষমতায় দেখতে চাই না। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের উদ্দেশে তিনি বলেন, পদত্যাগ করুন। একটি নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিন। একটি নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন করুন। তারপর শিগগিরই নির্বাচন দিন। অন্যথায় বাংলাদেশের মানুষ যারা যুদ্ধ করে স্বাধীনতা নিয়ে এসেছে, গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠিত করেছে, তারা অবশ্যই এই ফ্যাস্টিস্ট, অত্যাচারী ও নির্যাতনকারী এ সরকারকে জনগণের জন্য একটি নির্বাচন দিতে বাধ্য করবে। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় হাজিরার নামে হয়রানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। তারা বলেন, ষড়যন্ত্র আর অত্যাচার করে গত ৯ বছরে বিএনপিকে দুর্বল করা যায়নি। নির্যাতন নিপীড়ন উপেক্ষা করেই গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনা হবে। আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, ভাইস চেয়ারম্যান এডভোকেট জয়নুল আবেদিন ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. মাহবুব উল্লাহ বক্তব্য দেন।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   বাবা বিএনপিতে, ছেলে আ. লীগে

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

five × four =