পদ্মা সেতুতে দ্বিতীয় স্প্যান বসানো হয়েছে। রোববার সকাল সোয়া ৯টার সময় শরীয়তপুরের জাজিরার নাওডোবা প্রান্তের ৩৮ ও ৩৯ নম্বর পিলারের ওপর এই সুপার স্ট্রাকচার বসানো হয়। দ্বিতীয় স্প্যানটি বসানোর কারণে ৩০০ মিটার দৃশ্যমান হলো পদ্মা সেতু।
গতকাল শনিবার ৩৯ ও ৪০ নম্বর খুঁটির কাছাকাছি ক্রেনটি নেয়া হয়। সকাল ১০টার দিকে ক্রেন দিয়ে ৩৮ ও ৩৯ নম্বর খুঁটির ওপরে স্প্যানটি তোলার কাজ শুরু হয়। বিকেল ৫টা পর্যন্ত চেষ্টা করেও স্প্যানটি বসানো সম্ভব হয়নি। আলো স্বল্পতার কারণে রাতেও কাজ করা সম্ভব হয়নি। এক মিটার ব্যবধানে স্প্যানটি খুঁটি বরাবর ঝুলিয়ে রাখা হয়। আজ রোববার সকাল ৮টা থেকে আবার কাজ শুরু হয়। সকাল সোয়া ৯টার দিকে স্প্যানটি পুরোপুরি খুঁটির ওপর স্থাপন করা হয়।
সেতু বিভাগ সূত্র জানায়, ৩ হাজার ৬০০ টন ওজনের একটি ভাসমান ক্রেন দিয়ে মাওয়া থেকে জাজিরা প্রান্তে স্প্যানটি আনা হয়। গত সোমবার রাতে ‘তিয়ান ই’ ক্রেনে ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্য ও তিন হাজার ১৪০ টন ওজনের স্প্যানটি আসে। প্রতিটি স্প্যানের দৈর্ঘ্য ১৫০ মিটার। এমন ৪১টি স্প্যান জোড়া দিয়েই সেতুটি তৈরি হবে।
এর আগে ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর পিলারের মধ্যে পদ্মা সেতুর প্রথম স্প্যান বসানো হয়। ৫ মাসের ভেতরই বসলো দ্বিতীয় স্প্যান।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   আগাম জামিন পেলেন বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

4 × four =