জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস পাকিস্তানের ‘মানবাধিকার কর্মী’ আসমা জাহাঙ্গীরের মৃত্যুতে তার স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন। গুতেরেস ন্যায্যতা ও সমতার পক্ষে আসমার সাহসী ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করেন।
সপ্তাহান্তে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে আসমা মারা যান। খবর বার্তা সংস্থা এএফপি’র।
অ্যান্তোনিও গুতেরেস ৬৬ বছর বয়সী আইনজীবীর পরিবারের সদস্য, ভক্ত ও শুভাকাক্সক্ষীদের প্রতি ‘আন্তরিক সমবেদনা’ জানান।
জাতিসংঘ মহাসচিব এক বিবৃতিতে বলেন, ‘আমরা একজন মহান মানবাধিকার কর্মীকে হারিয়েছি।’
রোববার আসমার মৃত্যুর খবরের পর বিবৃতিটি প্রকাশিত হয়। বিবৃতিতে আরো বলা হয়, ‘তিনি (আসমা) সকল মানুষের মৌলিক অধিকার ও সমতার পক্ষের অক্লান্ত সৈনিক ছিলেন। একজন পাকিস্তানী আইনজীবী হিসেবে অভ্যন্তরীণ বিচার ব্যবস্থার পাশাপাশি বৈশ্বিক সমাজকর্মী হিসেবেও তিনি আজীবন মানুষের অধিকারের জন্য কথা বলে গেছেন। আসমা একজন অত্যন্ত প্রতিভাবান, আদর্শবাদী, সাহসী ও কোমল হৃদয়ের অধিকারী ছিলেন।
তারা একসঙ্গে হিউম্যান রাইটস কমিশন অব পাকিস্তান প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। এছাড়াও তারা ইরানের মানবাধিকার বিষয়ক ইউএন স্পেশাল র‌্যাপটা হিসেবে একসঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   সিরিয়ার সরকারপন্থী যোদ্ধাদের ওপর তুর্কি বাহিনীর হামলা

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

thirteen − eight =