প্রেমিকের সঙ্গে পালানোর কারণে শাস্তি দেয়া সতের বছর বয়সী এক বালিকা ধর্ষণ মামলা করেছে তার পিতা, ভাই ও দুই চাচার বিরুদ্ধে। পুলিশ তাদেরকে গ্রেপ্তার করেছে। অভিযোগে বলা হয়েছে, ঘটনাটি মুজাফফরনগরের। ওই বালিকা তার প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে গিয়েছিল। এ অপরাধের শাস্তি দিতে তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে- এমনটাই আদালতে বলেছে ওই বালিকা। উত্তর প্রদেশের মুজাফফরনগরের এ ঘটনা বিলম্বে হলেও মিডিয়ায় প্রকাশিত হয়েছে।

অভিযুক্ত চারজনকেই পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন জি নিউজ। এতে বলা হয়েছে, ওই বালিকা ৩২ বছর বয়সী এক যুবকের সঙ্গে পালিয়ে গিয়েছিল, যে বিবাহিত ও তার রয়েছে তিনটি সন্তান। এর আগেও দু’বার তারা পালিয়ে গিয়েছিল। একবার জুলাই মাসে। পরে অক্টোবরে। ওই সময় দু’দফাই পরিবার থানায় অপহরণ মামলা করেছিল। তবে শেষ পর্যন্ত ওই বালিকা পুলিশের কাছে গিয়ে জানায়, সে স্বেচ্ছায় পালিয়ে গিয়েছিল ওই যুবকের সঙ্গে। এরপরই অভিযুক্তকে ছেড়ে দেয় পুলিশ। মামলা হয় বালিকার পিতা, ভাই ও দুই চাচার বিরুদ্ধে। এলাহাবাদ হাই কোর্টে ২রা নভেম্বর হাজির হয়ে ওই বালিকা তার পরিবারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে। বলে, একটি নার্সিং হোমে নিয়ে তাকে তারা ধর্ষণ করেছে। তাছাড়া তাকে জোর করে গর্ভপাত করানো হয়েছে। তবে তার এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তার মা ও সংশ্লিষ্টরা।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   আসামে নাগরিকত্ব নিয়ে আতঙ্ক

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

5 × 3 =