চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলায় প্রধান শিক্ষকের ভুলে প্রবেশপত্র না আসায় এসএসসি পরীক্ষা দিতে পারেনি এক শিক্ষার্থী। গত বৃহস্পতিবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কাছে ওই শিক্ষার্থী এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি করেছেন ইউএনও।

ওই শিক্ষার্থীর নাম জেসমিন আক্তার। সে উপজেলার ছেংগারচর মডেল উচ্চবিদ্যালয়ের বিজ্ঞান শাখার শিক্ষার্থী। ওই বিদ্যালয়ের কেন্দ্র থেকেই এবারের এসএসসি পরীক্ষা দেওয়ার কথা ছিল তার।

লিখিত অভিযোগ ও ওই বিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষক সূত্রে জানা গেছে, নবম শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হয়ে ওই শিক্ষার্থী ২০১৬ সালে ওই বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষার নিবন্ধন (রেজিস্ট্রেশন) করে। ওই কাজে নির্ধারিত ফিও দেয় সে। ২০১৭ সালে দশম শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হয়ে এসএসসি পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে থাকে। এরপর নির্বাচনী পরীক্ষায় কৃতকার্য হয়ে পরীক্ষার ফরমও পূরণ করে। কিন্তু গত বুধবার বিদ্যালয়ে গিয়ে সে জানতে পারে তার  পরীক্ষার প্রবেশপত্র ও নিবন্ধন কার্ড আসেনি। বিষয়টি জানালে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) বেনজির আহম্মেদ মুন্সী তাকে পরদিন বৃহস্পতিবার বাংলা প্রথম পত্র পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ করে দেওয়ার আশ্বাস দেন। কিন্তু প্রবেশপত্র না থাকায় পরদিন কেন্দ্রে গিয়ে পরীক্ষা দিতে পারেনি সে। ওই দিনই এ বিষয়ে সে ইউএনওর কাছে লিখিত অভিযোগ করে।

ইউএনও শারমিন আক্তার জানান, ওই ছাত্রীর লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন। বিষয়টি তদন্তে বৃহস্পতিবার উপজেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার (ভূমি) শুভাশিস চন্দ্র ঘোষকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. সালাউদ্দিন ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কাজী আবদুল ওয়াহিদ মো. সালেহ।

তিনি আরও জানান, আগামী রোববারের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার জন্য কমিটিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তদন্তে অভিযোগের প্রমাণ পাওয়া গেলে ওই প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

প্রধান শিক্ষক বেনজির আহম্মেদ মুন্সী বলেন, ‘অনেক চেষ্টা করেও ওই ছাত্রীর প্রবেশপত্র আনা যায়নি। আমাদের ভুলে এ সমস্যা হয়েছে।’

আরও পড়ুনঃ   শিক্ষামন্ত্রীর আশ্বাস প্রত্যাখান, অনশন চলছে

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

5 − one =