আর মাত্র একদিন পর সনাতন ধর্মাবলম্বী হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় পর্ব শারদীয় দুর্গোৎসব শুরু হচ্ছে। জেলার নয় উপজেলার ৭৩৪টি মন্ডপে এ বছর দুর্গা পূজার প্রস্তুতি চলছে।

এখন মণ্ডপে মণ্ডপে চলছে প্রতিমার রং ও সাজ সজ্জার শেষ মুহূর্তেও কাজ। প্রতিমা শিল্পীরা রং তুলির কাজে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। চলছে সাজসজ্জার কাজও।
এ বছর ফরিদপুরের নয় উপজেলার ৭৪৩টি মণ্ডপে দুর্গা পূজার আয়োজন করা হয়েছে। এর মধ্যে বোয়ালমারী উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের ধোপাডাঙ্গা গ্রামে সিআইপি যশোদা জীবন দেবনাথের বাড়ির মন্দিরে জেলা সর্ববৃহৎ দুর্গা পূজার আয়োজন চলছে। ওই মণ্ডপে “রামায়ণ” এর কাহিনীর অবলম্বনে দুই শতাধিক প্রতিমা গড়ে দুর্গা পূজার আয়োজন করা হয়েছে।

ওই পূজা কমিটির সমন্বয়কারী গোবিন্দ অধিকারী জানান, রামায়ণ এর কাহিনী অবলম্বনে আমরা এ বছর পূজার আয়োজন করেছি। সব প্রস্তÍতি শেষ করা হয়েছে। আশা করছি দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে দর্শনার্থীরা পূজা দেখতে আসবেন।

ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জামাল পাশা জানান, উৎসবমুখর পরিবেশে শারদীয় দুর্গোৎসব উদযাপনে তিন স্তরের নিরাপত্তা দেওয়া হবে। ইতোমধ্যে সে প্রস্ততি নেওয়া হয়েছে।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

three × 2 =