তৃতীয়বারের মতো বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন পাকিস্তানের প্রভাবশালী রাজনীতিবিদ ও সাবেক ক্রিকেট তারকা ইমরান খান। নববধূ বুশরা মানেকা পাঞ্জাবের পাকপাত্তন জেলার শ্রদ্ধেয় ‘পীর’। চল্লিশোর্ধ বুশরা বিখ্যাত ওয়াত্তো বংশের। লাহোরে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে ইমরান ও বুশরার বিবাহ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। দলীয় প্রধানের বিয়ের খবর নিশ্চিত করেছে ইমরান খানের দল তেহরিক-ই-ইনসাফ। এ খবর দিয়েছে রয়টার্স।

খবরে বলা হয়, ৬৫ বছর বয়সী ইমরান খানের নববধূ বুশরা পাঁচ সন্তানের মা। সম্প্রতি ইমরান খান বুশরাকে নিজের ‘আধ্যাত্মিক উপদেষ্টা’ হিসেবে পরিচয় দিয়েছিলেন। বুশরার পরামর্শকে মূল্যবান মনে করেন বলেও জানিয়েছিলেন তিনি। এর আগে দু’বার বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন ইমরান খান। তার প্রথম স্ত্রী পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত বৃটিশ সাংবাদিক জেমিমা খান। তখন পাকিস্তানি গণমাধ্যমসহ আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তাদের বিয়ে ব্যাপকভাবে আলোচিত হয়। কিন্তু ২০০৪ সালে ইমরান-জেমিমা জুটির বিচ্ছেদ ঘটে। এর পরে বিবিসির সাংবাদিক রিহাম খানের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে ইমরান খানের। ২০১৫ সালে গাঁটছড়া বাঁধেন তারা। কিন্তু বেশিদিন একসঙ্গে থাকার সুযোগ হয়নি তাদের। বিয়ের মাত্র দশ মাস পরই আলাদা হয়ে যান তারা। এর পরে পাঞ্জাবের ‘পীর’ বুশরা মানেকার সঙ্গে বিবাহ-বন্ধনে আবদ্ধ হলেন ইমরান। উল্লেখ্য, ১৯৯২ সালে বিশ্বকাপ জয়ী পাকিস্তান ক্রিকেট দলের অধিনায়ক ছিলেন ইমরান খান। কিন্তু অবসরে যাওয়ার পর পুরোদস্তুর রাজনীতিবিদ বনে যান সফল এই ক্রিকেটার। বর্তমানে তিনি পাকিস্তানের প্রভাবশালী রাজনৈতিক দল তেহরিক-ই-ইনসাফের প্রধান। আগামী নির্বাচনে দলটি বিজয়ী হয়ে সরকার গঠন করতে পারে- এমন সম্ভাবনাও দেখছেন অনেকে। আর তখন ইমরানই হবেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   ১৮ বছর আগেই তাকে ভালো লেগেছিল" নাবিলার বিয়ের সিদ্ধান্ত

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

2 × five =