শিক্ষাবৃত্তি ঘোষণা করছে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশনস (আইসিসিআর)। এটি ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের জন্য প্রযোজ্য হবে। ভারতীয় হাইকমিশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

একমাত্র চিকিৎসাশাস্ত্র ছাড়া অন্য সব বিষয়ে স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি পর্যায়ে পড়াশোনা করার জন্য মেধাবী বাংলাদেশি নাগরিকদের এই শিক্ষাবৃত্তি দেওয়া হয়ে থাকে। ভারত সরকার এ পর্যন্ত প্রায় তিন হাজার বাংলাদেশি নাগরিককে আইসিসিআর শিক্ষাবৃত্তি দিয়েছে।

২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের জন্য স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি পর্যায়ে বিভিন্ন কোর্সে পড়াশোনা করার জন্য নিম্নলিখিত বৃত্তি দেওয়া হচ্ছে—

১. বাংলাদেশ বৃত্তি স্কিম (প্রকৌশলসহ স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি/পোস্ট ডক্টরাল কোর্সের জন্য)
২. ভারত বৃত্তি স্কিম (প্রকৌশল ছাড়া স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি/পোস্ট ডক্টরাল কোর্সের জন্য)

বৃত্তি পেতে ইচ্ছুক প্রার্থীদের ইংরেজি ভাষায় দক্ষ হতে হবে এবং পাসকৃত পরীক্ষায় কমপক্ষে ৬০ শতাংশ নম্বর অথবা জিপিএ–৫–এর মধ্যে ৩ থাকতে হবে। আগ্রহী শিক্ষার্থীদের অনলাইনে আবেদন করার জন্য https://a2ascholarships.iccr.gov.in এই ঠিকানায় নিজেদের ব্যক্তিগত লগইন আইডি ও পাসওয়ার্ড তৈরি করে নিতে হবে। আবেদনকারীদের নির্দেশনাগুলো পড়ে অনলাইনে আবেদন করতে অনুরোধ করা যাচ্ছে। অনলাইনে আবেদনের সময় আবেদনকারীকে নিম্নোক্ত বিষয়গুলো লক্ষ রাখতে হবে; যাঁরা BE/B Tech. কোর্সের জন্য আবেদন করবেন, তাঁদের স্কুল-কলেজের পাঠ্যসূচিতে অবশ্যই পদার্থবিদ্যা, গণিত ও রসায়ন অন্তর্ভুক্ত থাকতে হবে। আবেদনকারীর বয়স অবশ্যই জুলাই ২০১৮–এর মধ্যে ১৮ হতে হবে। সব শিক্ষার্থীকে হোস্টেলে থাকতে হবে। পরিবার ও স্বাস্থ্যসংক্রান্ত কারণ ছাড়া বাইরে অবস্থান করা যাবে না।

অনলাইনে আবেদন জমা দেওয়ার শেষ সময় ২০ জানুয়ারি, শনিবার বিকেল পাঁচটা। প্রার্থীদের ৩০ মিনিটের ইংরেজিতে দক্ষতা যাচাইয়ে অংশ নিতে হবে, যার সময় ও স্থান পরে জানিয়ে দেওয়া হবে।

বিস্তারিত তথ্যের জন্য শিক্ষা শাখা, ভারতীয় হাইকমিশন, ১-৩ পার্ক রোড, বারিধারা, ঢাকা ফোন-৫৫০৬৭৩০-৫৫০৬৭৩০৮ এক্সটেনশন-১০৯৬/১১১২, ই-মেইল: [email protected] এই ঠিকানায় যোগাযোগ করা যাবে।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   শিক্ষার্থীদের নৈতিক শিক্ষায় কোম্পানীগঞ্জে ‘সততা স্টোর’

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

one × 2 =