২০১১ সালে কলকাতা নাইট রাইডার্সে যোগ দিয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। অনেকগুলো মৌসুমই কাটালেন সেখানে। বলা যেতে পারে হয়ে উঠেছিলেন কলকাতার ঘরের ছেলে। কিন্তু সেই ঘরের ছেলেকেই এবার ছেড়ে দিয়েছিল কলকাতা। দীর্ঘদিন পরে নিলামের হাতুড়ির নিচে গিয়ে বাংলাদেশের অলরাউন্ডার বিক্রি হয়েছেন ২ কোটি রুপিতে। এই অর্থে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ কিনেছে তাঁকে।
এবার ‘মারকুই’ তারকা হিসেবে সাকিবের ভিত্তিমূল্য ছিল ১ কোটি রুপি। প্রথম ডাকেই তাঁকে নিতে আগ্রহী হয়ে ওঠে সানরাইজার্স। হায়দরাবাদের দলটির পরে নিলামে যোগ দেয় রাজস্থান রয়্যালস। কিন্তু খুব বেশি এগোয়নি সাকিবকে পাওয়ার লড়াই। ২ কোটিতেই তাঁকে পেয়ে যায় সানরাইজার্স, যে দলে শেষ দুই মৌসুমে খেলেছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান।
কলকাতার হয়ে মোট ৪৩টি ম্যাচ খেলেছেন সাকিব। মোট রান করেছেন ৪৯৮। আর উইকেট পেয়েছেন ৪৩টি। শেষ মৌসুমে কলকাতার হয়ে মাঠে নামার তেমন সুযোগই পাননি। ১টি মাত্র ম্যাচে এসেছিল সুযোগ। সে ম্যাচে ব্যাট হাতে অপরাজিত ১, আর বল হাতে ৩ ওভারে ৩১ রান দিয়ে ছিলেন উইকেটশূন্য। বোঝাই যাচ্ছিল, কলকাতার দিন ফুরিয়ে আসছে সাকিবের। এবার নতুন দল, নতুন চ্যালেঞ্জ। সাকিব কতটুকু কী করতে পারবেন, সেটা সময়ই বলে দেবে।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   ‘বিশ্বকাপের দেশে’ কষ্টের জয় আর্জেন্টিনার

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

1 × 4 =