প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগকে সরকারের সাজানো রূপকথার গল্প হিসেবে দেখছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো একেবারে পাতালপুরী থেকে নিয়ে আসা রূপকথার গল্প ছাড়া কিছুই নয়। জোর করে তাকে ছুটিতে পাঠিয়ে দেশ ছাড়তে বাধ্য করার পর এখন চূড়ান্ত পদক্ষেপ পদত্যাগ করাতেই হঠাৎ এসব অভিযোগ তোলা হয়েছে বলে জনগণ বিশ্বাস করে।

সোমবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, এটা একেবারে সুস্পষ্ট যে, প্রধান বিচারপতিকে ঘায়েল করার জন্য তার বিবৃতি, তার বক্তব্য, ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ে তার পর্যবেক্ষণে সরকার নানাভাবে মানসিক যন্ত্রণায় ভুগছে বলে এই বানোয়াট আক্রমণ শুরু করেছে একের পর এক।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, সুপ্রিম কোর্টের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে- প্রধান বিচারপতিকে বাদ দিয়ে আপিল বিভাগের অন্য বিচারপতিদের ডেকে নিয়ে রাষ্ট্রপতি বৈঠক করেছেন এবং তাদের বুঝিয়েছেন। প্রশ্ন রেখে রিজভী বলেন, রাষ্ট্রপতির যদি প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে এত অভিযোগ থাকে, তাহলে সংবিধানের ৯৬ অনুচ্ছেদ প্রয়োগ করলেন না কেন? এসব অভিযোগ এতদিন করলেন না কেন? সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেলসহ ১০ কর্মকর্তাকে বদলির আদেশ সংক্রান্ত আইন মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপনকে বেআইনি বলে উল্লেখ করেন রিজভী।

তিনি বলেন, এটা নজিরবিহীন ঘটনা। প্রধান বিচারপতি অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার আগে বলেছিলেন, সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসনের রদবদল শুধু প্রধান বিচারপতির এখতিয়ার। তাহলে তার বক্তব্য অনুযায়ী আইন মন্ত্রণালয়ের বদলির প্রজ্ঞাপনও বেআইনি।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, কেন্দ্রীয় নেতা আবদুস সালাম আজাদ, মুনির হোসেন, কাজী আবুল বাশার, রফিকুল ইসলাম রাসেল, সাইফুল ইসলাম পটু প্রমুখ।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

eighteen − 2 =