বিদেশী কূটনীতিকরা রোহিঙ্গা সংকটের স্থায়ী সমাধানে তাদের সমর্থন অব্যাহত রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারের সঙ্গে সম্পৃক্ততা অব্যাহত রাখতে ঢাকার আহবানের প্রেক্ষিতে তারা এ প্রতিশ্রুতি দেন।
রোববার বিকেলে রাজধানীতে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আয়োজিত কূটনীতিকদের ব্রিফিং শেষে এক বিবৃতিতে এ কথা বলা হয়।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের তাদের স্বদেশ মিয়ানমারে প্রত্যাবাসনের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি সম্পর্কে কূটনীতিকদের অবহিত করেন। এ সময় কূটনীতিকরা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় প্রদান এবং এ ধরনের মানবিক পরিস্থিতি কার্যকরভাবে সামাল দেয়ার জন্য বাংলাদেশ সরকারের প্রশংসা করেন।
ব্রিফিং-এ যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, সৌদি আরব, ভারত, চীন এবং জাপানসহ ৫২টি মিশনের রাষ্ট্রদূত, হাইকমিশনার এবং প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। তারা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে রোহিঙ্গাদের স্থায়ী প্রত্যাবাসনের বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।
এ সময় পররাষ্ট্র সচিব এবং মন্ত্রণালয়ের পদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন এবং প্রত্যাবাসনে অবকাঠামোগত ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যে বেশ কয়েকটি চুক্তির কথা উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের নিরাপদ, স্বেচ্ছায়, মর্যাদার সঙ্গে এবং স্থায়ী প্রত্যাবাসনে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   ‘হোয়াট ইজ ডেভেলপমেন্ট’ মির্জা ফখরুল

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

3 + 4 =