গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, একজন সংসদ সদস্য হবে ঘোষিত-এটা যে কত নোংরা, নিচ কর্মকাণ্ড তা ভাষা দিয়ে বোঝানো যাবে না। একটি সভ্য সমাজে লজ্জাবোধ না থাকলেই যে কেউ সব কিছু করতে পারে। বিনা ভোটে একজন লোক সংসদ সদস্য হয়ে যাবেন এটা তো কোনো গণতন্ত্র না। গণফোরামের কাছে বিনা ভোটে ঘোষিত সংসদ সদস্য হওয়ার অফার এসেছিল, কিন্তু দলের কেউ এতে সায় দেয়নি।

ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্সের মুক্তিযোদ্ধা মিলনায়তনে আজ শুক্রবার ‘বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও গণফোরামের কর্মসূচি’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।

তিনি মঞ্চের নেতৃবৃন্দ ছাড়াও বক্তাদের দেখিয়ে সরকারের প্রতি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে বলেন, এরা কেউ ঘোষিত সংসদ সদস্য হবেন না। কারণ এদের লজ্জা আছে। বাংলাদেশের জনগণের এখনও আত্মসন্মান বোধ আছে। বিনা ভোটে একজন লোক সংসদ সদস্য হয়ে যাবেন এটা তো কোনো গণতন্ত্র না।

বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠানে টাকা লোপাটের খববের উদ্ধৃতি টেনে ড. কামাল হোসেন অর্থমন্ত্রীর কাছে এ ব্যাপারে তথ্য জানতে জনগণকে সংসদ অভিমুখে যাওয়ার কর্মসূচি নিতে বলেন।

তিনি বলেন, আমরা লাঠালাঠি বা সংঘর্ষ চাই না। সরকারের এসবের বিরুদ্ধে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করতে হবে। এজন্য জনগণকে ঐকবদ্ধ হতে হবে।

তিনি বলেন, দেশের উজ্জ্বল ভবিষ্যত অপেক্ষা করছে। হাজার হাজার কোটি থাকা পাচার হয়ে যাবে এমন দায়িত্বহীনতার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। গুম-খুন করে সমাজে এমন একটি পরিস্থিতির সৃষ্টি করা হচ্ছে যেন কেউ প্রতিবাদ করতে সাহস না পায়।

তিনি বলেন, দেশে ধর্ষণের মহামারী দেখা দিয়েছে। কারা এসব অপকর্মে জড়িত তাদের নামও প্রকাশিত হচ্ছে। অথচ এদের ধরা হচ্ছে না। এসব ধর্ষক সরকারের কাছের লোক। তাই সাহস করছে না কেউ কিছু বলতে।

দলের নির্বাহী পরিষদের সদস্য অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী বলেন, ২০১৮ হবে গণফোরামের বছর। বর্তমান সরকারই একটি অপশক্তি। অতীতে যেমন আন্দোলনের মাধ্যমে অপশক্তি সরানো হয়েছে তেমনি এ সরকারকেও নামাতে হবে।

আরও পড়ুনঃ   বিএনপির শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে পুলিশ বাধা দেয় না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ বলেন, সংবিধানে মৌলিক অধিকারের কথা বলা হলেও তা এখন অনুপস্থিত।

তিনি বলেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে অনেক দূরে। নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের ক্ষমতা ফিরিয়ে আনতে হবে।

আলোচনা সভায় গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মোহসিন মন্টুসহ আ.ও.ম. শফিক উল্লাহ মোশতাক আহমদ, অ্যাডভোকেট মহিউদ্দিন আহমদ, অ্যাডভোকেট সেলিম আহমদ, অ্যাডভোকেট জানে আলম, সাইদুর রহমান, ফরিদা ইয়াসমিন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

three × one =