বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশনের (বিসিক) উদ্যোগে মতিঝিলস্থ বিসিক ভবনে শুরু হয়েছে ৫ দিনব্যাপী বসন্ত মেলা ও কারুশিল্প প্রদর্শনী।
রোববার বিসিক চেয়ারম্যান মুশতাক হাসান মুহ. ইফতিখার মেলা ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন।
এ সময় তিনি বলেন,কুটির ও হস্তশিল্প খাতের পণ্যের চাহিদা মেটাতে ক্রেতাদের চাহিদানুযায়ী আকর্ষণীয় নতুন ও মানসম্পন্ন পণ্যসামগ্রী উৎপাদনের ওপর গুরুত্ব দিতে হবে। এক্ষেত্রে বিসিক থেকে কারুশিল্পীদের সম্ভাব্য সকল প্রকার সেবা-সহায়তা প্রদান করা হবে।
প্রশিক্ষণপ্রাপ্তরা অর্থাভাবে শিল্প স্থাপন না করতে পারলে বিসিকের নিজস্ব তহবিল থেকে ঋণ কর্মসূচির আওতায় এসব উদ্যোক্তাকে ঋণ সহায়তা প্রদান করা হবে বলে তিনি জানান।
বিসিকের নকশা কেন্দ্র থেকে প্রশিক্ষণ গ্রহণকারীদের বিভিন্ন পণ্য সামগ্রীর পরিচিতি ও বাজার সৃষ্টির মাধ্যমে তাদেরকে সহায়তা প্রদানের উদ্দেশ্য মেলার আয়োজন করা হয়েছে। মেলায় বিভিন্ন ধরণের পোশাক, নকশীকাঁথা, তাঁতের ও জামদানি শাড়ি, পাটজাত হস্তশিল্প, আধুনিক পদ্ধতিতে উৎপাদিত মধু,খাদ্যজাত সামগ্রীসহ হস্ত ও কুটির শিল্পজাত পণ্যের সমারোহ ঘটেছে। মেলা উপলক্ষে জয়নুল আবেদিন প্রদর্শনকক্ষে কারুশিল্পীদের উৎপাদিত পণ্যসামগ্রী নিয়ে চলছে কারুশিল্প প্রদর্শনী।
প্রসঙ্গত, বিসিক অন্যান্য কাজের পাশাপাশি নকশা কেন্দ্রের মাধ্যমে ব্লক,বাটিক প্রিন্টিং,স্ক্রিন প্রিন্টিং,পুতুল তৈরি, মৃৎ শিল্প, প্যাকেজিং, বাঁশ-বেতের কাজ, পাটজাত হস্তশিল্প, চামড়াজাত পণ্য, ধাতব শিল্প, বুনন শিল্প, ফ্যাশন ডিজাইন ও কৃত্রিম ফুলসহ ১৩টি ট্রেডে এ পর্যন্ত ২৮ হাজার ৭৮২ জন উদ্যোক্তাকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।
মেলার উদ্বোধনী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিসিকের পরিচালক (নকশা ও বিপণন) মো. রেজাউল করিম,প্রধান নকশাবিদ বেগম মনোয়ারা খাতুনসহ বিসিকের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও কারুশিল্পীগণ উপস্থিত ছিলেন।
মেলায় বিভিন্ন ধরনের হস্ত ও কুটির শিল্পপণ্যের ৫১টি স্টল স্থান পেয়েছে।মেলা চলবে আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত মেলা সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   '১০ টাকার হিসাবে জমা পড়েছে ১৩০০ কোটি টাকা'

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

19 + seven =