ভারতের রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোভিন্দ লাভজনক পদে থাকায় দেশটির দুর্নীতি বিরোধী আম আদমি দলের ২০ আইনপ্রনেতাকে বরখাস্ত করাকে স্বাগত জানিয়েছে বিজেপি ও কংগ্রেস। খবর সিনহুয়ার।
পার্লামেন্টারি সেক্রেটারি হিসেবে লাভজনক পদ ধরে রাখায় দিল্লী বিধান সভার এ ২০ আইনপ্রনেতাকে নির্বাচন কমিশন অযোগ্য ঘোষণা করার দু’দিন পর রোববার প্রেসিডেন্ট এমন পদক্ষেপ নিলেন।
৭০ আসন বিশিষ্ট এ কক্ষে ৬৬ টি আসন পাওয়ায় দিল্লীতে আম আদমি দলের সরকারের জন্য এটি তাৎক্ষণিকভাবে কোন হুমকি সৃষ্টি করবে না। এসব আসনে তাদের অযোগ্য ঘোষণার ছয়মাসের মধ্যে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
এদিকে আম আদমি দল তাদের আইনপ্রনেতাদের অযোগ্য করার সিদ্ধান্তের কঠোর সমালোচনা করেছে। অপরদিকে ভারতের ক্ষমতাসিন ভারতীয় জনতা পার্টি এবং প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেস এ পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছে।
আম আদমি দলের প্রধান ও দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল বলেন, ‘তারা আমাদের আইনপ্রনেতাদের বিরুদ্ধে ভুয়া মামলা দায়ের করেছে। আমার বিরুদ্ধেও কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা জোরালো তদন্ত চালিয়েছে। কিন্তু তারা দুর্নীতির কোন প্রমাণ পায়নি। অবশেষে তারা আমাদের ২০ জন আইনপ্রনেতাকে অযোগ্য ঘোষণা করলো।’
দিল্লী কংগ্রেস প্রেসিডেন্ট অজয় মকেন বলেন, ‘নিজ দলের ২০ আইনপ্রনেতা অযোগ্য হওয়ায় কেজরিওয়াল ক্ষমতায় থাকার নৈতিক অধিকার হারিয়েছেন। এখন তার পদত্যাগ করা উচিত।’
বিজেপির এক নেতা বলেন, ‘আমরা ২০ আইনপ্রনেতাকে অযোগ্য ঘোষণার প্রেসিডেন্টের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাই।’

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   মিয়ানমার সেনাবাহিনীর মদদপুষ্ট আরসা

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

twelve − two =