ভিনগ্রহের প্রাণী বিষয়ে মানুষের আগ্রহের সীমা নেই। আর মানুষের এই চাহিদার খোরাক জোটাতেই কি না পাশ্চাত্যের সংবাদমাধ্যমগুলোতে একটি আকর্ষণীয় খবর থাকে ভিনগ্রহের প্রাণী সংক্রান্ত। গণমাধ্যমের অগ্রযাত্রার জোয়ারে ভারতের গণমাধ্যমেও ইদানীং ভিনগ্রহের প্রাণীর সন্ধান হামেশাই পাওয়া যাচ্ছে।

গত বুধবার থেকে ভারতীয় সামাজিক মাধ্যম ও গণমাধ্যমে এমনই একটি ‘ভিনগ্রহের প্রাণীর’ ছবি ও খবর দেখা যাচ্ছে। ছবিটির উৎস দেশটির রাজস্থান রাজ্যের যোধপুর এলাকার বাওয়াড়ি গ্রাম। একটি অদ্ভুত দর্শন প্রাণীকে হাতে নিয়ে দেখা যাচ্ছে এক গ্রামবাসীকে এবং ওই গ্রামের অধিবাসীসহ সামাজিক মিডিয়ায় রব, মাটির নিচে পাওয়া গেছে ভিনগ্রহের প্রাণী!

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের খবরে জানা গেছে, বাওয়াড়ি গ্রামে নলকূপ খুঁড়তে গিয়ে কিম্ভূতকিমাকার জীবটিকে পাওয়া যায়। মানুষের চেহাররা আদলের সঙ্গে যথেষ্ট মিল আছে ছোট আকারের প্রাণিটির। মাটির নিচ থেকে বের করে আনার পর প্রাণিটি জীবিত ছিল বলে দাবি করেছে গ্রামবাসী।

এদিকে সামাজিক মাধ্যমের এই যুগে ভারতে এই ছবি এখনও ভাইরাল। তবে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, বিজ্ঞানকর্মীরা আগ্রহী হয়ে ওই গ্রামে যান। কিন্তু এ ধরনের কিছু খুঁজে পাননি তাঁরা। বিজ্ঞানকর্মীরা পৌঁছানোর আগেই গ্রামবাসী ‘মাটির নিচে পাওয়া দেবতাকে’ নদীতে ভাসিয়ে দিয়েছে বলে দাবি করে।

তবে সামাজিক মাধ্যম ও গণমাধ্যমে ভাইরাল হওয়া এই ভিডিও দেখে যুক্তিবাদীদের মত‚ মাটির নিচ থেকে সত্যিই যদি এই জিনিস বের হয় তাহলে এটি হয়তো কোনো প্রাণীর অপরিণত ভ্রূণ। এমনটি ছবির এই জিনিসটিকে মানুষের অপরিণত ভ্রূণ হওয়ার সম্ভবানাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না তাঁরা।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   বিশিষ্ট পরমাণু বিজ্ঞানী প্রয়াত ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া’র ৭৬তম জন্মদিন পালিত

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

20 − 5 =