ফুটবল খেলাটাই এমন যে ম্যাচে সারাক্ষণ ছুটোছুটির প্রয়োজন নেই। সুযোগ বুঝে দু-একটা ‘মুভ’ দিয়েই প্রতিপক্ষের সর্বনাশ করা যায়। লিওনেল মেসির কথাই ধরুন, বার্সেলোনার এ ফরোয়ার্ড সর্বশেষ ‘এল ক্লাসিকো’ ম্যাচের বেশির ভাগ সময়ই হেঁটেছেন। কিন্তু ‘ঝোপ বুঝে কোপ’ মারতে পারলে তাঁর দুলকি চালে হাঁটা কে মনে রাখে!

দ্বিতীয়ার্ধে নিজে পেনাল্টি থেকে লক্ষ্যভেদের পর যোগ করা সময়ে সতীর্থ অ্যালেক্স ভিদালকে দিয়েও গোল করান মেসি। এ ছাড়া দু-তিনটি ‘মুভ’ দিয়ে ব্যস্ত রেখেছিলেন জিনেদিন জিদানের রক্ষণকে। সব মিলিয়ে লা লিগা মৌসুমের প্রথম ‘এল ক্লাসিকো’য় আলো ছড়িয়েছেন আর্জেন্টাইন এ ফরোয়ার্ড। কিন্তু পরিসংখ্যান বলছে, দুর্দান্ত খেললেও মেসি তো মাঠে বেশির ভাগ সময় হেঁটেছেন—সেটা ম্যাচের ৮৩.১ শতাংশ সময়!

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘এল পেরিওডিকো’ ম্যাচের ৯০ মিনিট সময় বিশ্লেষণ করে জানিয়েছে এ পরিসংখ্যান। তার বাইরে ম্যাচের ১০.৮ শতাংশ সময় মেসি ‘জগিং’ করেছেন। দৌড়েছেন ৪.৯৫ শতাংশ সময় আর পূর্ণবেগে দৌড়েছেন মানে ‘স্প্রিন্টিং’ করেছেন মাত্র ১.১৫ শতাংশ সময়।

মেসির নিন্দুকেরা হয়তো এ জন্য তাঁকে ‘আলসে’ বলতে পারেন। কিন্তু পরিসংখ্যান বলেছে তা বলার সুযোগ নেই। লা লিগার এ মৌসুমে মেসিই একমাত্র ‘আউটফিল্ড’ খেলোয়াড়, যিনি বার্সার হয়ে সারাক্ষণই মাঠে ছিলেন। মোক্ষম সময়ে ঝাঁপিয়ে পড়ার শক্তি জমা রাখতেই মেসি ম্যাচের বেশির ভাগ সময় হেঁটে থাকেন বলে মতামত বিশ্লেষকদের। আর মেসি ঝাঁপিয়ে পড়লে কী ঘটতে পারে, সেটা কিন্তু হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছে রিয়ালের মতো দল!

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   ‘বিশ্বকাপের দেশে’ কষ্টের জয় আর্জেন্টিনার

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

4 × 2 =