বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী অভিযোগ করে বলেছেন, রংপুর সিটি করপোরেশন (রসিক) নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনী পরিবেশ এখনো তৈরি করতে পারেনি ইসি। এসময় রসিক নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের দাবি জানান তিনি।
আজ বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানী নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।
রংপুর সিটি নির্বাচন প্রসঙ্গে রুহুল কবির রিজভী বলেন, নির্বাচনী মাঠে প্রচারণায় সকল প্রার্থীর সমান সুযোগ এখনো হয়নি। ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবে ভোটাররা এখনো ভয়ভীতির মধ্যেই রয়েছেন। এমন অবস্থায় রংপুর সিটি নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে কি না, এ ব্যাপারে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে।
রসিক নির্বাচনে ম্যাজিট্রেসি ক্ষমতা দিয়ে সেনাবাহিনী মোতায়েনের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, প্রধান নির্বাচন কমিশনের নেতৃত্বে কমিশনের উর্দ্ধতন ব্যক্তিদের মানসিকতা স্বাধীন না হলে কমিশনের আইনী স্বাধীনতা কোন কাজে আসে না।
তিনি বলেন, আগামী ২১ ডিসেম্বর রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ইতিমধ্যে গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে ১৯৬টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৩৩টিই ঝুঁকিপূর্ণ। নির্বাচন কমিশন দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে না। আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী বারবার আচরণ বিধি লঙ্ঘন করলেও ইসি তার বিরদ্ধে কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না।
রিজভী বলেন, ক্ষমতাসীন দলের লোকেরা গোটা এলাকায় ভয়ভীতি ছড়াচ্ছে বলেও প্রার্থীরা অভিযোগ করেছেন। এমনকি ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীকে শুরু থেকে যেভাবে হয়রানী করা হয়েছে তাও নজিরবিহীন। আমরা আবারো নির্বাচন কমিশনকে বলতে চাই-ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীকে পেছনের দরজা দিয়ে জেতানোর কোন চেষ্টা করলে জনগণ সেটির উপযুক্ত জবাব দিবে।
বেসিক ব্যাংকে দুর্নীতি ও কেলেঙ্কারির মূল হোতারা এখনো ধরাছোঁয়ার বাইয়ে মন্তব্য করে রিজভী বলেন, রাজকোষ কেলেঙ্কারিসহ সমস্ত আর্থিকখাতে যে লুটপাট হয়েছে, এর পিছনে সরকারের রাঘববোয়ালরা জড়িত। অথচ ব্যাংক লুটের লাখ লাখ কোটি টাকা দেশ থেকে পাচার হয়ে গেলেও দুদুক এসব বিষয়ে নির্বিকার। কিন্তু জনগণ তাদের ক্ষমা করবে না। লুটেরাদের একদিন জনতার কাঠগড়ায় দাঁড়াতেই হবে- বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন বিএনপির এই সিনিয়র নেতা।
সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি নেতা আব্দুস সালাম, আব্দুস সালাম আজাদ, মুনির হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

seventeen − three =