লাভ জিহাদের প্রতিশোধের নামে রাজস্থানে পশ্চিমবঙ্গের মালদহের বাসিন্দা আফরাজুল খান নামে এক যুবককে কুপিয়ে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। মোবাইলে সেই হত্যাকাণ্ডের ভিডিও করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। তার পরেই উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে রাজস্থানের রাজসামাদ এলাকায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে এলাকার ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। রাজস্থানের রাজসামাদে একটি হোটেলের বাইরে রাস্তার ধারে অর্ধদগ্ধ অবস্থায় আফরাজুলের দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। হত্যাকারীর নাম শম্ভু লাল।
রাজস্থানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী গুলাব চাঁদ কাটারিয়া জানিয়েছেন, শম্ভু লাল নামে ওই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ঘটনার তদন্তে এসআইটি (স্পেশাল ইনভেস্টিগেশন টিম) গঠন করা হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় হত্যাকাণ্ডের যে ভিডিও ছড়িয়েছে তাতে দেখা গিয়েছে একটি রামদা দিয়ে মধ্যবয়স্ক এক ব্যক্তিকে কোপাচ্ছে শম্ভুলাল। আর চিৎকার করে বলছে, লাভ জিহাদ বন্ধ না করলে এই পরিণতি হবে সকলের। আপরাজুলের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, সে ২০ বছর ধরে রাজস্থানে রয়েছে। সেখানে দিনমজুরের কাজ করে। পুলিশ অবশ্য জানিয়েছে, অভিযোগ কোনও হিন্দু মেয়ের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন তিনি। তারপরেই এই হত্যাকা-। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মালদহের কালিয়াচকের যুবককে হত্যার তীব্র নিন্দা করেছেন। এদিকে কালিয়াচকে নিহত যুবকের পরিবার একটি হিন্দু মেয়ের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন বলে যে কথা বলা হচ্ছে তা মানতে চান নি। স্ত্রী গুলবাহার বিবি বলেছেন, আমার স্বামীকে ফাঁসানো হয়েছে। ঘর থেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে ওকে খুন করা হয়েছে। হত্যাকারীর মৃত্যুদণ্ড চাই।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

eight − 5 =