টেস্টে বোলার স্টিভ স্মিথকে খুব বেশি দেখা যায় না। আজ মেলবোর্ন টেস্টে দ্বিতীয় দিনের শেষ ওভারে তাঁকে বোলিংয়ে দেখে অনেকেই হয়তো চমকে গেছেন। স্মিথ কিন্তু চমকে দিতে চেয়েছিলেন অ্যালিস্টার কুককে। হয়তো ভেবেছিলেন ‘নার্ভাস নাইন্টিজ’-এ থাকায় ইংলিশ ওপেনারের মনোযোগে ব্যাঘাত ঘটতে পারে। স্মিথ ভুল অঙ্ক কষেছিলেন। সেই ওভারে দুটি বাউন্ডারি মেরে কুক ঠিকই তুলে নিয়েছেন তাঁর ৩২তম টেস্ট সেঞ্চুরি।

দিনের সেই শেষ ওভারটির মতো ইংল্যান্ড কিন্তু আজ তিন সেশনেই ছোট ছোট লড়াই জিতেছে। ৩ উইকেটে ২৪৪ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনে ব্যাটিংয়ে নেমেছিল অস্ট্রেলিয়া। ৬৭ রান তুলতেই তারা হারিয়েছে বাকি ৭ উইকেট। এর মধ্যে একাই ৩ উইকেট নেন স্টুয়ার্ট ব্রড। অস্ট্রেলিয়া প্রথম ইনিংসে ৩২৭ রানে গুটিয়ে যাওয়ার পেছনে ব৶ডের ভূমিকাই বেশি (২৮-১০-৫১-০৪)। আগের দিন ৬৫ রানে অপরাজিত স্মিথ এদিন বেশি দূর এগোতে পারেননি। ৭৬ রানে আউট হন তিনি।

দ্বিতীয় দিনে মাত্র ৩০ ওভারের মধ্যে অস্ট্রেলিয়াকে গুটিয়ে দেওয়ার পর ব্যাটিংয়েও সেশন ধরে ধরে জিতেছে ইংল্যান্ড। ওভারপ্রতি ৩.৩৬ রান গড়ে ২ উইকেটে ১৯২ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিন শেষ করেছে জো রুটের দল। উইকেটে রয়েছেন ইংল্যান্ডের বর্তমান এবং সাবেক অধিনায়ক। ১০৪* রানে কুক এবং ৪৯ রানে রুট।

ইংলিশ ব্যাটিংয়ের নেতৃত্ব দিয়েছেন কুক। দিনের শেষ ওভারে স্মিথের চতুর্থ বলে বাউন্ডারি মেরে সেঞ্চুরি তুলে নেন কুক। টেস্টে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরিসংখ্যায় কুক এখন স্টিভ ওয়াহর সঙ্গে যুগ্মভাবে সপ্তম। বাউন্ডারি মেরে সেঞ্চুরি তুলে নেওয়া ওই শটটি দিয়ে টেস্টে সর্বোচ্চ রানসংখ্যায় মাহেলা জয়াবর্ধনেকেও টপকে যান তিনি। ১৫১তম টেস্টে কুকের রানসংখ্যা ১১,৮১৬ (রানে অষ্টম)। সেঞ্চুরিটা তাঁর ক্যারিয়ারের জন্যও সঞ্জীবনী সুধার মতো। আগের ১০টি ইনিংসে ন্যূনতম ফিফটির দেখাও পাননি সাবেক এ ইংলিশ অধিনায়ক, যা কুকের ১২ বছরব্যাপী ক্যারিয়ারে সবচেয়ে দীর্ঘ রানখরা। কুকের ক্যারিয়ারের শেষের শুরু হয়ে গেল কি না, এমন প্রশ্নও উঠে গিয়েছিল।

আরও পড়ুনঃ   আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ অনিশ্চয়তা: পাঠক প্রতিক্রিয়া

তৃতীয় দিনে ইংলিশ ইনিংসের সুর-তাল-লয় বেঁধে দেওয়ার চ্যালেঞ্জ কুকের সামনে। হাতে ৮ উইকেট রেখে অস্ট্রেলিয়ার প্রথম ইনিংস থেকে ইংল্যান্ড এখনো ১৩৫ রানে পিছিয়ে। সিরিজের ফয়সালা যেহেতু আগেই হয়ে গেছে, তাই কোনো চাপ না নিয়ে যতক্ষণ সম্ভব ব্যাটিং করাই সম্ভবত ইংল্যান্ডের লক্ষ্য।

 টেস্টে সর্বোচ্চ আট রানসংগ্রাহক

খেলোয়াড়  ম্যাচ        রান    গড়  সেঞ্চুরি ফিফটি
শচীন টেন্ডুলকার  ২০০       ১৫,৯২১ ৫৩.৭৮  ৫১ ৬৮
রিকি পন্টিং  ১৬৮       ১৩,৩৭৮ ৫১.৮৫  ৪১ ৬২
জ্যাক ক্যালিস  ১৬৬       ১৩,২৮৯ ৫৫.৩৭  ৪৫ ৫৮
রাহুল দ্রাবিড়  ১৬৪       ১৩,২৮৮ ৫২.৩১  ৩৬ ৬৩
কুমার সাঙ্গাকারা  ১৩৪       ১২,৪০০ ৫৭.৪০  ৩৮ ৫২
ব্রায়ান লারা  ১৩১       ১১,৯৫৩ ৫২.৮৮  ৩৪ ৪৮
শিবনারায়ণ চন্দরপল  ১৬৪       ১১,৮৬৭ ৫১.৩৭  ৩০ ৬৬
অ্যালিস্টার কুক  ১৫১*       ১১,৮১৬ ৪৫.৯৭  ৩২ ৫৫

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

one + 18 =