অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত আজ দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেছেন, দেশের সর্ববৃহৎ রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাংক সোনালী ব্যাংক লিমিটেড আগামী কয়েক বছরের মধ্যে একটি আদর্শ ব্যাংক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হবে।
তিনি বলেন, ‘আমি আগেই বলেছিলাম সোনালী ব্যাংককে আমরা একটি আদর্শ ব্যাংকে রূপান্তর করব। তবে তা ২০১৯ সালের মধ্যে সম্ভব নয়। কিন্তু এখন আমার দৃঢ় বিশ্বাস জন্মেছে যে, আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই এটি আবার সরকার ও ব্যাংকিং সেক্টরে অন্যতম বৃহৎ সেবাদাতা আদর্শ ব্যাংক হিসেবে গড়ে উঠবে।’
মন্ত্রী আজ রাজধানীর কাকরাইলে ইনস্টিটিউট অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশ (আইডিইবি) মিলনায়তনে সোনালী ব্যাংক লিমিটেডের বার্ষিক সভায় এসব কথা বলেন।
অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব ইউনুসুর রহমান এতে বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে সোনালী ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান মো. আশরাফুল মকবুল সভাপতিত্ব করেন এবং স্বাগত বক্তব্য দেন ব্যাংকের সিইও ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদ।
ব্যাংকিং সেক্টরের দুর্বলতা নিয়ে অসন্তোষের কথা পুনর্ব্যক্ত করে মুহিত বলেন, ‘আমি এ ব্যাপারে মোটেই খুশি নই এবং আমি প্রায়ই বলে থাকি ব্যাংকিং সেক্টরে দুর্বলতা রয়েছে।’
তিনি বলেন, ‘কিন্তু যদি ব্যাংকিং সেক্টরে ১৯৭২-১৯৭৬ এবং ১৯৮১ সালের সঙ্গে বর্তমান অবস্থার তুলনা করি তাহলে বলা যায় বর্তমানে ব্যাংকিং সেক্টর ‘স্বর্ণ যুগ’-এর মধ্যদিয়ে চলছে।’
অন্যান্য বক্তার সঙ্গে সুর মিলিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, ২০১৭ সালে ধাক্কা খেলেও ২০১৮ সালে সোনালী ব্যাংক দেশের বৃহত্তম রাষ্ট্রীয় বাণিজ্যিক ব্যাংক হিসেবে সামনের দিকে এগিয়ে যাবে।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   গতকালই ছিল শেয়ারবাজারে বছরের শেষ লেনদেন দিবস।

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

ten − one =