আশ্রিত রোহিঙ্গাদের নিরাপদে মিয়ানমারে ফেরত পাঠানোর বিষয়ে বাংলাদেশ সরকারের উদ্যোগকে জোরালো সমর্থন জানিয়েছে মালয়েশিয়া। সফররত দেশটির উপপ্রধানমন্ত্রী আহমেদ জাহিদ হামিদি গতকাল সোমবার সকালে কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে এ কথা জানান।

এ সময় তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের স্বদেশে ফেরতের বিষয়ে মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে আশিয়ানভুক্ত দেশগুলোকে সঙ্গে নিয়ে তাঁর দেশ মালয়েশিয়া কাজ করবে।

আশ্রিত রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে ক্যাম্প এলাকায় একটি ফিল্ড হাসপাতাল স্থাপন করবে মালয়েশিয়া। বাংলাদেশে সফররত দেশটির উপপ্রধানমন্ত্রী আহমেদ জাহিদ হামিদি গতকাল কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনকালে বলেন, সম্প্রতি হাসপাতালের কাজ শুরু হবে। রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশ একা নয়। মালয়েশিয়াও বাংলাদেশের পাশে থাকবে।

মালয়েশিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী গতকাল সকাল ১১টার দিকে উখিয়ার কুতুপালংয়ে রোহিঙ্গা আশ্রয়শিবির পরিদর্শনে আসেন। শিবির পরিদর্শনে এসে তিনি মিয়ানমার বাহিনীর নির্যাতন-নিপীড়নের শিকার হওয়া বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের সঙ্গে কথা বলেন। তিনি এসব নির্যাতিত রোহিঙ্গা নারী ও শিশুদের দুর্দশার বিবরণ শোনেন। পরে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আমি অবিলম্বে রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমার বাহিনীর নির্যাতন বন্ধের আহ্বান জানাচ্ছি।

মালয়েশিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ সরকার রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে যে মানবিকতা দেখিয়েছে, তা বিশ্বের জন্য একটি উদাহরণ হয়ে থাকবে। রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ায় বাংলাদেশ সরকারকেও ধন্যবাদ জানান মালয়েশিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী।

গতকাল সকাল সাড়ে ৮টার দিকে মালয়েশিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিশেষ বিমান হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে কক্সবাজার পৌঁছায়। সেখান থেকেই তিনি রোহিঙ্গা শিবিরে যান। রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে দুপুরের পর তিনি বাংলাদেশ ছেড়ে যান।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

one × 1 =