অনেক শারীরিক সমস্যাতেই রসুন খুবই উপকারি। কিন্তু আবার রসুনের কিছু কিছু গুণের জন্য কিছু শারীরিক সমস্যা বেড়েও যেতে পারে। শারীরে যে সমস্যাগুলো থাকলে রসুন খাবেন না, তা এবারের অ্যালবামের মাধ্যমে জেনে নিন।

লিভারের সমস্যা : লিভারের সমস্যা থাকলে রসুন খাওয়া ছেড়ে দিন। রসুন সমস্যা বাড়িয়ে দিতে পারে।

হোমিওপ্যাথি ওষুধ : পেঁয়াজ, রসুন হোমিওপ্যাথি ওষুধের কার্যকারিতে নষ্ট করে দিতে পারে। তাই হোমিওপ্যাথি ওষুধের কোর্স খেলে সেই সময় রসুন এড়িয়ে চলুন।

নিম্ন রক্তচাপ : যদি নিম্ন রক্তচাপজনিত সমস্যায় ভোগেন তাহলে রসুন এড়িয়ে চলুন। রসুন রক্তচাপ আরও কমিয়ে জটিলতা তৈরি করতে পারে।

রক্তাল্পতা : রসুন রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা কমিয়ে দেয়। তাই রক্তাল্পতার সমস্যা থাকলে রসুন ডায়েট থেকে বাদ দিন।

বদহজম : হজমের সমস্যায় ভুগলে রসুন ও তেল মসলাযুক্ত খাবার থেকে দূরে থাকুন।

গর্ভ নিরোধক পিল : যদি আপনি নিয়মিত গর্ভ নিরোধক পিল খান তাহলে অতিরিক্ত রসুন খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। রসুন গর্ভ নিরোধক পিলের কার্যকারিতা কমিয়ে দেয়।

প্রেগন্যান্সি : রসুন শরীর গরম করে। গর্ভাবস্থায় অতিরিক্ত রসুন খেলে তা শরীরের তাপমাত্রা বাড়িযে দেয়। যার ফলে গর্ভপাতের সম্ভাবনা থাকে।

জেনে নিন, খালি পেটে রসুন খাওয়ার যত উপকার:

অনেকের কাছেই সকালে খালি পেটে কাঁচা রসুন খাওয়াটা ভীষণ অস্বাস্থ্যকর মনে হতে পারে। কিংবা অনেকেই মনে করতে পারেন যে এটা স্রেফ একটা কুসংস্কার। কিন্তু আসলেই কি তাই? একদম না! খালি পেটে রসুন খাওয়া দেহের জন্য ভীষণ স্বাস্থ্যকর একটি ব্যাপার। বরং খালি পেটে রসুন খেলে এমন কিছু উপকার হয়, যেটা অন্য খাবারের সাথে রান্না করা অবস্থায় খেলে হয় না।

চলুন, জেনে নিই খালি পেটে রসুন কীভাবে খাবেন ও কেন খাবেন।
কীভাবে খাবেন?

খালি পেটে রসুন অবশ্যই খেতে হবে সকালে, নাস্তা করার আগে। চিবিয়ে খেতে না চাইলে পানি দিয়ে গিলে ফেলুন দুই কোয়া রসুন। তবে হ্যাঁ, অবশ্যই টুকরো করে নেবেন।

কেন খাবেন?

খালি পেটে রসুন খাওয়া মূলত রসুনের ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়, একে পরিণত করে একটি শক্তিশালী অ্যান্টিবায়োটিকে। গবেষকদের মতে খালি পেটে রসুন খাওয়া হাইপারটেনশন ও স্ট্রেস কমাতে সহায়তা করে, অন্যদিকে হজমের গণ্ডগোল রোধ করে। স্ট্রেস থেকে পেটে গ্যাসের সমস্যা হলে সেটাও প্রতিরোধ করে খালি পেটে রসুন। অন্যদিকে পেটের গণ্ডগোল জনিত অসুখ, যেমন ডায়রিয়া হলে এই খালি পেটে রসুন দ্রুত তা সারিয়ে দেয়। সকালে খালি পেটে রসুন খাওয়া শরীরের রক্ত পরিশুদ্ধ করে ও লিভারের ফাংশন ভালো রাখতেও সহায়তা করে।

যাদের রসুনে অ্যালার্জি আছে তাঁরা এড়িয়ে চলুন।

পরিশেষে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দেই, প্রতিদিন সকালে খালি পেটে রসুন এর ২/৩ কোয়া চিবিয়ে খেলে স্পার্ম কাউন্ট বাড়ে, এরই সাথে কারো যদি ইরেকসনে সমস্যা হয় সেটাও দূর হয় রসুন খেলে। এই খাবার নিয়মিত ভাবে ৩ মাস খেলেই বুঝতে পারবেন আপনার শারীরিক সক্ষমতার পরিবর্তনটি। এর সাথে যোগ করতে পারেন কালি জিরা যার উপকারিতা সবারই জানা।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

17 − seven =