মিঠু হালদার:

‘যখন হবে তখন তো সবাই জানতেই পারবে। এ নিয়ে এখন কথা বলার কিছু নাই।’ ঢাকাই চলচ্চিত্রের এ সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও আলোচিত নায়ক শাকিব খানের কাছে প্রশ্ন ছিল, আপনারা (শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস) নাকি বিচ্ছেদে যাচ্ছেন? এ প্রশ্নের উত্তরেই জনপ্রিয় এ নায়ক সরাসরি ‘হ্যাঁ বা ‘না’ উত্তর না দিয়ে বরং তাদের বিচ্ছেদের গুঞ্জনের বিষয়ে  আলাপকালে এমনটিই বললেন।

আজ ৪ নভেম্বর বিকাল থেকে সন্ধ্যার কিছুটা আগ পর্যন্ত এফডিসিতে একটি ছবির শুটিং করছিলেন শাকিব খান। শুটিংয়ের ফাঁকে  তাদের (শাকিব-অপু) বিচ্ছেদের গুঞ্জনের বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন তিনি। কারণ অতি উৎসাহীরা আতশি কাচ দিয়ে তাদের সম্পর্কের ফাটল খুঁজে বেড়াচ্ছেন কিছুদিন ধরে। ফলে গত কয়েকদিন ধরে ফের শাকিব-অপুর বিচ্ছেদের গুঞ্জনের বিষয়টি আলোচনায় আসে। অন্যদিকে শাকিব খান তাদের বিচ্ছেদের বিষয়টি নিয়ে একজন আইনজীবীর সঙ্গে কথাও বলেছেন বলে সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিতে গুঞ্জনের ডালপালা মেলেছে।

আর একই বিষয়ে কথা বলার জন্য ৪ নভেম্বর বিকাল থেকে মোবাইল ফোনে বহুবার চেষ্টা করার পরে সন্ধ্যা ৬টার কিছুটা আগে পাওয়া গেল শাকিব খানের স্ত্রী ও ঢাকাই ছবির আলোচিত চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসকে। সে সময় এ প্রতিবেদক অপুকেও তাদের (শাকিব-অপু) বিচ্ছেদের গুঞ্জনের বিষয়টি নিয়ে একই প্রশ্ন করে। অপু বিশ্বাস বলেন, ‘এ বিষয়টি নিয়ে আমি কোনো কথাই বলতে চাই না। আর কথা বাড়াতেও চাই না। এ নিয়ে আমার কোন মাথা ব্যথা নেই। আর মাথা ব্যথা না থাকলে সেটি নিয়ে তো কোনো কথাও বলার প্রয়োজন বোধ করারও বিষয় নাই। যা হওয়ার হচ্ছে, হোক।’

শাকিব খান এবং অপু বিশ্বাস তাদের বিয়ের খবর গত নয় বছর ধরে গোপন রেখেছিলেন। এরপর এ বছরের ১০ এপ্রিল (সোমবার) বিকেল ৪টায় দেশের একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দিতে এসে, এক প্রকার হাটে হাড়ি ভেঙে দেন অপু। এতদিন অপু বিশ্বাস গোপনে আগলে রেখেছিলেন শাকিব খানের ঔরসজাত সন্তানকে। কলকাতার একটি ক্লিনিকে ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর জন্ম হয় শাকিব-অপুর ছেলে আব্রাহাম খান জয়ের। সে সময় অপু বিশ্বাসের সিজারও করা হয়। এ খবর প্রকাশের পর থেকেই শাকিবের সঙ্গে অপু’র মান-অভিমান চলছেই। একটা সময় গিয়ে এ নিয়ে শাকিবের সঙ্গে অপুর দূরত্ব তৈরি হয়। এখন ছেলেকে নিয়ে রাজধানীর নিকেতনের বাসায় অপু তার পরিবারের সঙ্গে শাকিবকে ছাড়াই আছেন।

এদিকে গত ২৭ সেপ্টেম্বর ছিল শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের পুত্র আব্রাম খান জয়ের প্রথম জন্মদিন। জন্মদিনের দাওয়াতপত্রে অপু বিশ্বাস ও জয়ের ছবি থাকলেও শাকিব খানের কোন ছবি ছিল না। তখনও শাকিব-অপুর সম্পর্কের চরম টানাপোড়নের বিষয়টি আলোচনায় আসে। এমনকি পুত্রের সে জন্মদিনের অনুষ্ঠানে যাননি শাকিব! যদিও শাকিব তার পুত্রের সঙ্গে সেদিন দিনের বড় একটা অংশ কাটিয়েছেন। এরপর থেকেই তাদের সম্পর্কের টানাপোড়েন দিনকে দিন বাড়ছেই।

শাকিব খান গত ৩০ অক্টোবর ‘চালবাজ’ ছবির শুটিং শেষ করে ভারত থেকে ঢাকায় ফিরেছেন। এরপর আজ ৪ নভেম্বর এফডিসিতে ‘আমি নেতা হব’ ছবির শুটিংয়ে অংশ নেন। আর ৫ নভেম্বর সকালের ফ্লাইটে থাইল্যান্ড যাচ্ছেন তিনি। এ খবরও প্রিয়.কম’কে জানান শাকিব। জানা গেছে, কলকাতার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শ্রী ভেঙ্কটেশ প্রযোজিত নাম চূড়ান্ত না হওয়া নতুন একটি ছবির শুটিংয়ে যাচ্ছেন তিনি। ছবিটি পরিচালনা করবেন কলকাতার জনপ্রিয় নির্মাতা রাজিব বিশ্বাস।

এরপর ‘আমি নেতা হব’ ও ‘চিটাগাইঙ্গা পোয়া ও নোয়াখাইল্লা মাইয়া’ ছবির গানের শুটিং করবেন সেখানে। তারপর ২০ নভেম্বরের দিকে দেশে ফিরবেন তিনি। জানা গেছে, বাংলাদেশের প্রযোজনা সংস্থা হার্টবিট প্রোডাকশনের নাম ঠিক না হওয়া একটি নতুন ছবিতে তিনি কাজ করবেন। এ ছবিতে শাকিবের বিপরীতে অভিনয় করবেন শবনম বুবলী। আসছে ডিসেম্বর থেকে এ ছবির কাজ শুরু হবে।

অপু বিশ্বাস মাতৃত্বজনিত কারণে প্রায় দেড় বছর চলচ্চিত্রে অভিনয় থেকে দূরে ছিলেন। গত কিছুদিন আগে তার পুরনো অর্ধ সমাপ্ত ‘পাংকু জামাই’ ছবির শুটিংয়ের মধ্য দিয়ে ফের ফিরেছেন তিনি। গত ৯ অক্টোবর ছবির শুটিংও শেষ করেছেন। সেই সঙ্গে ডাবিংও। কিন্তু ঢাকাই সিনেমার সর্বাধিক সিনেমার সফল শাকিব-অপু বিশ্বাস জুটির এবার আনুষ্ঠানিক ইতি ঘটতে যাচ্ছে।

১ ডিসেম্বর থেকে অপু বিশ্বাস তার থমকে যাওয়া ক্যারিয়ারের নতুন অধ্যায় শুরু করতে যাচ্ছেন। তার নতুন ছবি ‘কাঙ্গাল’ এ নায়ক হিসেবে থাকছেন ডিএ তায়েব ও বাপ্পি। কাশেম আলী দুলাল এ ছবির চিত্রনাট্যে লিখছেন। নির্মাণ করছেন বদিউল আলম খোকন। অপু অভিনীত সর্বশেষ বুলবুল বিশ্বাসের পরিচালনায় ‘রাজনীতি’ ছবিটি মুক্তি পেয়েছে। পাশাপাশি নির্মাণাধীন রয়েছে ‘মা’, ‘মাই ডার্লিং’ এবং ‘লাভ ২০১৬’।

অপু বিশ্বাস ২০০৪ সালে আমজাদ হোসেনের ‘কাল সকালে’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পা রাখেন। এরপর ২০০৬ সালে পরিচালক এফ আই মানিক পরিচালিত ‘কোটি টাকার কাবিন’ ছবিতে নায়িকা হিসেবে শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেন তিনি। ২০০৬ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত টানা এই জুটি একাধারে ৭০টির মতো ছবিতে জুটি বাঁধেন। একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে একসময় পরস্পর প্রেমের বাঁধনে জড়িয়ে যান। এরপর ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল বিয়ের পিঁড়িতে বসেছিলেন শাকিব-অপু।

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

7 + 14 =