সিটি করপোরেশন, পুলিশ প্রশাসন ও জেলা প্রশাসককে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে নারায়ণগঞ্জে হকার বসার নির্দেশ দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি ও মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য শামীম ওসমান। হকার ইস্যু নিয়ে উত্তপ্ত পরিস্থিতিতে গতকাল বিকালে শহরের চাষাঢ়ায় পৌর মার্কেটের সামনে হকার সমাবেশে উপস্থিত হন তিনি। এ সময় শামীম ওসমান হাতের ঘড়ি দেখে বলেন, এখন বাজে সাড়ে চারটা। আমার প্রিয় হকার ভাইদের বলছি, আগামীকাল (মঙ্গলবার) বিকাল সাড়ে ৪টা থেকে নারায়ণগঞ্জে আবার হকার বসবে। এটা কোনো অনুরোধ নয়, সুপারিশ নয়, এটা এমপি শামীম ওসমানের নির্দেশ। আগামীকাল (আজ) থেকে আবার আমার হকার ভাইয়েরা এই নারায়ণগঞ্জে ব্যবসা করবে।

কোনো প্রশাসন অথবা কেউ যদি আমার এই হকার ভাই-বোনদের গায়ে হাত দেয় সেটা আমি শামীম ওসমান দেখবো।
শামীম ওসমান বলেন, কোনো বিকল্প ব্যবস্থা না দিয়ে যদি কেউ মনে করেন নারায়ণগঞ্জে হকার  উঠিয়ে দিবেন, পারবেন। অবশ্যই পারবেন। শামীম ওসমানের মৃত্যুর পর, তার আগে পারবেন না। আমি আমার নেতাকর্মী যারা আছেন, ছাত্রলীগ, যুবলীগ, কৃষকলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নির্দেশ দিয়ে দিলাম, যদি কোনো মাস্তান, কোনো ব্যক্তি হকারদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করতে আসে তাদের প্রতিরোধ করবেন। বাকিটা আমি দেখবো।
আমাদের শুধু একটা ওয়াদা করবেন আপনারা। কোথাও কাউকে একটাকাও চাঁদা দিবেন না। যদি কেউ চাঁদা চায়, সরকারি কিংবা বেসরকারি যেই হোক না কেন, আগে বাঁধবেন, তারপর আমার কাছে আসবেন। আমার এই বক্তব্যকে সিটি করপোরেশন বা কেউ ব্যক্তিগতভাবে নেবেন না। হকার দিনের বেলা বসবে না। বিকাল পাঁচটা থেকে রাত দশটা পর্যন্ত বসবে। তারপর আমরা বিকল্প যা করতে হয় তা করবো।
আর প্রশাসনকে বলছি, আপনাদের আগামী ফেব্রুয়ারি মাসের ২১ তারিখ পর্যন্ত সময় দেয়া হলো। আপনারা হকারদের নিয়ে বিকল্প ব্যবস্থার আলোচনা, সমঝোতা করেন। আর হকারদের লুট হওয়া মাল ফিরিয়ে আনার দায়িত্ব আমি দিচ্ছি আপনাদের হকার আন্দোলনের নেতা হাফিজুল ইসলামকে। যদিও বামপন্থিরা আমার পেছনে একসময় লেগে থাকতো। তবে এ আন্দোলনে হকারদের নেতৃত্ব দেয়ার জন্য তাদের আমি ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
শামীম ওসমান বলেন, আমি আল্লাহ্‌কে খুশি করার জন্য রাজনীতি  করি। কি পাবো আর কি পাবো না সে চিন্তা করে রাজনীতি করি না। আমি কাউকে অনুরোধ করতে আসি নাই, আমি সেলিম ওসমান সাহেব না। আমি আমার ভাইয়ের মতো এত ভদ্র মানুষ না। চিঠি লিখবো আর উত্তর দেবেন কর্মচারী দিয়ে। এমন এমপি শামীম ওসমান না। আমি পরিষ্কারভাবে বলতে চাচ্ছি এইটা কোনো অনুরোধ না, নির্দেশ দিলাম নারায়ণগঞ্জে হকার বসবে। এ সময় হকাররা আনন্দে ফেটে পড়ে। তারা শামীম ওসমানের নামে স্লোগান দিতে থাকে।
শামীম ওসমান বলেন, আমি নারায়ণগঞ্জের প্রশাসনের উদ্দেশে বলতে চাই, আমি নারায়ণগঞ্জের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উপদেষ্টা হিসেবে বলতে চাই, আগামীকাল (আজ) বিকাল সাড়ে চারটা থেকে আমি শহীদ মিনারের সামনে বসবো।  এই হকাররা আমার ভাই, আমার বন্ধু, আমার পরিবার। লাঠিতো দূরের কথা একজন পুলিশ সদস্য একটা গালিও যেন না দেয় হকারদের। এটা শামীম ওসমানের নির্দেশ, কোন আদেশ না, হুকুম না, কোনো রকম খাতির না। জনগণকে নিয়ে রাজনীতি করি জনগণকে নিয়েই থাকবো।
উল্লেখ্য, গত ২৫শে ডিসেম্বর থেকে নারায়ণঞ্জ শহরের ফুটপাত হকারমুক্ত করা হয়। এরপর উচ্ছেদ হওয়া হকাররা আন্দোলনে নামে। তারা নাসিক মেয়র, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার সবার কাছে গেছেন। কোনো সাড়া পাননি। মেয়র পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন কোনো অবস্থাতেই নগরবাসীর দুর্ভোগ সৃষ্টি করে ফুটপাতে হকার বসতে দেয়া হবে না।

আরও পড়ুনঃ   রাজধানীতে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষ, আগুন

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

eighteen − 13 =