বলিউড তারকা শাহরুখ খান এবার বেশ বিপাকেই পড়েছেন। মহারাষ্ট্রের আলিবাগে এই অভিনেতার মালিকানাধীন একটি ফার্মহাউজকে বেনামি সম্পত্তি আখ্যা দিয়ে অস্থায়ীভাবে বাজেয়াপ্ত করেছে ভারত সরকারের আয়কর বিভাগ। শাহরুখের নির্দেশেই নাকি আলীবাগের ওই সম্পত্তি কেনার জন্য নকল কাগজ তৈরি করা হয়েছে। শাহরুখ খানের সাবেক চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট মোরেশ্বর আজগাওকর আয়কর বিভাগকে এই তথ্য জানিয়ে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন। অভিযোগ উঠেছে, জমিটি চাষাবাদের জন্য কেনা হয়েছিল। ২০০৪ সালের ২৯ ডিসেম্বর শস্য উৎপাদন, উদ্যানপালনের জন্য দেজা ভু ফার্মস প্রাইভেট লিমিটেড নথিভুক্ত হয়। কিন্তু তার পরিবর্তে ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য ফার্মহাউজ নির্মাণ করেন শাহরুখ। বিলাসবহুল এই ফার্মহাউজে রয়েছে সুইমিং পুল ও হেলিপ্যাড। খামারবাড়িটি তৈরি করা হয়েছে ১৯ হাজার ৯৬০ বর্গমিটার জায়গার ওপর। এখন খামারবাড়িসহ এই সম্পত্তির মূল্য ২৫০ কোটি রুপি। শাহরুখের এই খামারবাড়ি ‘বেনামি সম্পত্তি’ ঘোষণা দিয়ে বাজেয়াপ্ত করেছে আয়কর বিভাগ। শাহরুখকে কারণ দর্শানো নোটিশ পাঠিয়ে বিচার বিভাগীয় কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিবেদন জমা দেয়া হয়েছে। আগামী তিন মাসের মধ্যে কারণ দর্শানো নোটিশের জবাব দিতে হবে শাহরুখকে। বিচার বিভাগীয় কর্তৃপক্ষের অনুমোদন পাবার পর আয়কর দপ্তর এ ব্যাপারে ফৌজদারি মামলা করবে। আইন অনুযায়ী শাহরুখ দোষী সাব্যস্ত হলে সাত বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে। পাশাপাশি ওই সম্পত্তির বর্তমান বাজার দরের ২৫ শতাংশ জরিমানাও হতে পারে।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   (ডিএনসিসি) উপনির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হচ্ছেন শাফিন

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

3 − three =