কোচ-খেলোয়াড়দের বেতন বকেয়া রাখা বাংলাদেশের ফুটবল ক্লাবগুলোর বাজে সংস্কৃতি। নাইজেরীয় কোচ এমেকা ইজিউগোর বেতন বকেয়া রাখায় মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের মাথার ওপর এখন ফিফার শাস্তির খড়্গ ঝুলছে। তবে ব্যাপারটির চূড়ান্ত নিষ্পত্তি না হলেও বকেয়া বেতনের দায়ে ফিফার শাস্তি পেতে যাচ্ছে দেশের ফুটবলের আরেক শীর্ষ ক্লাব শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্র। সার্বিয়ান ফুটবলার মিরোস্লাভ সাবানাভিচের বেতন আটকে রাখার শাস্তি হিসেবে ফিফা বাফুফেকে শেখ রাসেলের পয়েন্ট কাটার নির্দেশ দিয়েছে। এবারের মৌসুমে দলটির অর্জন থেকেই এই পয়েন্ট কাটা হবে বলে জানা গেছে। সেই সঙ্গে গুনতে হচ্ছে জরিমানা।

২০১৫ সালে শেখ রাসেলের জার্সিতে খেলেছিলেন সাবানাভিচ । কিন্তু নিজের বেতনের ৪ হাজার ১২৬ ডলার পরিশোধ করা হয়নি বলে তিনি ফিফায় নালিশ ঠুকে দিয়েছিলেন। ক্লাব বেতন পরিশোধ করেনি বলে ৪ হাজার ১২৬ মার্কিন ডলার চেয়ে ফিফায় নালিশ করেন তিনি । ফিফা দ্রুত তাঁর বেতন দিয়ে দেওয়ার নির্দেশও দিয়েছিল। কিন্তু শেখ রাসেল সেই নির্দেশ পালন করতে দুই বছর সময় নিয়ে ফেলাতেই এই শাস্তি। এখন শেখ রাসেলকে মোট দেড় হাজার সুইস ফ্রাঁ জরিমানা তো দিতেই হবে, সেই সঙ্গে কেটে নেওয়া হবে লিগের ৩ পয়েন্ট।
শেখ রাসেল অবশ্য সাবানাভিচের বকেয়া পরিশোধ করেছে। কিন্তু ফিফার নির্দেশ অনুযায়ী ২০১৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সেই পাওনা শোধ করতে হতো। কিন্তু রাসেল টাকা পরিশোধ করে ২১ নভেম্বর। ফলে টাকা দিলেও পয়েন্ট কাটার শাস্তি থেকে রেহাই পাচ্ছে না তারা।
শেখ রাসেলের এই শাস্তি নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশের ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) কমপিটিশন ম্যানেজার জাবের বিন তাহের ‘গত ডিসেম্বরে ফিফা থেকে আমাদের বলা হয়েছে শেখ রাসেলের পয়েন্ট কাটতেই হবে এবং সেটা এই বছরের লিগ থেকেই।’
তবে পুরো বিষয়টির জন্য বাফুফেকেই দায়ী করছেন শেখ রাসেলের স্পোর্টস ডিরেক্টর সালেহ জামান সেলিম, ‘বাফুফে যখন আমাদের এক মাসের আল্টিমেটাম দিয়েছিল, তখন তাদের চিঠি দিয়ে বলেছিলাম আমাদের পাওনা থেকে টাকাটা কেটে ফিফায় পাঠিয়ে দিতে। তারা সেটা করেনি। এখন পয়েন্ট কাটা গেলে এর দায় বাফুফেকেই নিতে হবে।’
এই মৌসুমে আরও দুটি ম্যাচ বাকি আছে শেখ রাসেলের। ২০ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট ২৫। লিগে তারা আছে ষষ্ঠস্থানে।

আরও পড়ুনঃ   গার্ডিয়ানের বর্ষসেরা একাদশে সাকিব-মুশফিক

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

nineteen − four =