জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজে শুভ সূচনা করেছিলো বাংলাদেশ। দুর্দান্ত জয়কে সাথে নিয়ে আগামীকাল শ্রীলংকার বিপক্ষে মুখোমুখি হচ্ছে টাইগাররা। টুর্নামেন্টের তৃতীয় ও বাংলাদেশের দ্বিতীয় ম্যাচ এটি। এ ম্যাচেও জয়ের লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামছে মাশরাফির নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ। অপরদিকে, জিম্বাবুয়ের কাছে হেরে এবারের আসরে যাত্রা শুরু করা শ্রীলংকার লক্ষ্য বাংলাদেশের বিপক্ষে জয় দিয়ে সিরিজে টিকে থাকার আশা বাঁচিয়ে রাখা। গতকালই শততম ওয়ানডে ম্যাচের স্বাদ নেয়া মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দু’দলের লড়াই শুরু হবে দুপুর ১২টায়।
প্রথমে বোলারদের দুর্দান্ত নৈপুন্যের পর ব্যাটসম্যানদের দায়িত্বশীল ব্যাটিং জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সহজ জয়ের স্বাদ এনে দেয় বাংলাদেশকে। ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হওয়া সাকিব আল হাসানের অলরাউন্ড নৈপুন্য ও তামিম ইকবালের ব্যাটিং-এ ৮ উইকেটের জয় তুলে নেয় টাইগাররা। উড়ন্ত জয়ে টুর্নামেন্ট শুরুর পর ফুরফুরা মেজাজেই রয়েছে বাংলাদেশ। তাই দলের কাছ থেকে আগামীকালও ওমন পারফরমেন্স চান বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা, ‘প্রথম ম্যাচ যদি দেখেন, আমরা কিন্তু প্রায় তিনশ’ রান চেজ করার মতো অবস্থানে ছিলাম। অবশ্যই এই ধরনের জয় বাড়তি একটা অনুপ্রেরণা দেয়। আশা করব, যারা ঐ ম্যাচে অপরাজিত ছিল তাদের আত্মবিশ্বাস ভালো পর্যায়ে থাকবে। আর যারা আউট হয়েছে, বিজয় ও সাকিব, ওরাও ভালো করতে পারবে। বোলিংয়ের দিক থেকে সবাই ভালো বোলিং করেছে। শ্রীলঙ্কাকে ২৭০/২৮০ রানের ভেতরে রাখার সামর্থ্য আমাদের অবশ্যই আছে। ওরা ভালো ব্যাটিং করলেও নিজেদের পরিকল্পনা ঠিকঠাক বাস্তবায়ন করতে পারলে যে রানের ভেতরে ওদের আটকাতে চাই তা করার সামর্থ্যও আমাদের আছে।’
জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে উড়ন্ত সূচনা করে বাংলাদেশ। কিন্তু শ্রীলংকা সেটি করতে ব্যর্থ। জিম্বাবুয়ের কাছে ১২ রানে হেরে যায় চন্ডিকা হাথুরুসিংহে শিষ্যরা। মিরপুরের শততম ওয়ানডে ম্যাচে রোমাঞ্চকর জয়ের স্বাদ নেয় জিম্বাবুয়ে। হার দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করলেও, এতে চিন্তিত নন শ্রীলংকার ব্যাটিং কোচ থিলান সামারাবিরা। বাংলাদেশের বিপক্ষে জয়ের প্রত্যাশা করে সামারাবিরা বলেন, ‘ভালো ব্যাপার হলো, টুর্নামেন্টে এখনও আমাদের বেশ কয়েকটি ম্যাচ আছে। প্রথম ম্যাচে আমরা আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী খেলতে পারিনি। তবে যদি আমরা আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী খেলতে পারি তাহলে বাংলাদেশের বিপক্ষে ভালো কিছু করতে পারবো। তিন দলের এমন টুর্নামেন্টে এটা হতেই পারে। আমরা এক বা দু’টি ম্যাচ হারতেই পারি। কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ হলো এখান থেকে ইতিবাচক কিছু নিয়ে তা সামনের ম্যাচগুলোতে কাজে লাগানো। ইতিবাচক দিকগুলো নিয়ে কাল ভালো ফলই প্রত্যাশা করছি।’
ওয়ানডেতে এখন পর্যন্ত ৪১ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ ও শ্রীলংকা। এরমধ্যে ৩৪টিতে জিতেছে লংকানরা। বাংলাদেশের জয় মাত্র ৫টি ম্যাচে। দুটি হয়েছে পরিত্যক্ত। সর্বশেষ ২০১৭ সালের মার্চে শ্রীলংকার মাটিতে তিন ম্যাচের সিরিজ খেলেছিলো বাংলাদেশ। ঐ সিরিজটি ১-১ সমতায় শেষ হয়েছিলো।
বাংলাদেশ দল : মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান, ইমরুল কায়েস, এনামুল হক বিজয়, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মুশফিকুর রহিম, সাব্বির রহমান, নাসির হোসেন, মোহাম্মদ মিথুন, মেহেদি হাসান মিরাজ, মুস্তাফিজুর রহমান, আবুল হাসান রাজু, রুবেল হোসেন, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন ও সানজামুল ইসলাম।
শ্রীলংকা দল : অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ (অধিনায়ক), উপুল তারাঙ্গা, দানুশকা গুনাথিলাকা, কুসল মেন্ডিজ, দিনেশ চান্ডিমাল, কুসল জেনিথ পেরেরা, ধিসারা পেরেরা, আসেলা গুনারতেœ, রিনোশান ডিকবেলা, সুরঙ্গ লাকমাল, নুয়ান প্রদীপ, দুশমন্ত চামিরা, শেহান মাদুশানাকা, আকিলা ধনঞ্জয়া, লক্ষন সান্দাকান ও বানিদু হাসারাঙ্গা।

আরও পড়ুনঃ   ক্রিকেটের ২০১৭ সাল

Comments

comments

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

five × five =