শাকিব খানের পাঠানো ডিভোর্স নোটিস এখনো হাতে না পেলেও অপু বিশ্বাস আজ (মঙ্গলবার) দুপুরে মানবজমিনকে বলেন, ডিভোর্স নোটিসটি পাবার পরে আমি একজন আইনজীবির পরামর্শ নিয়ে একটি সংবাদ সম্মেলন করব। সেখানে সাংবাদিকদের নিজের কিছু কথা জানাতে চাই। এদিকে শাকিব-অপুর বিয়ের কাবিনে দেনমোহর বাবদ শুধু ৭ লাখ টাকা উল্লেখ থাকলেও অপু বলেন, আমাদের বিয়ের কাবিননামায় টাকার অংক(দেনমোহর বাবদ) উল্লেখ আছে ১ কোটি ৭ লাখ। এটাকে কেউ যেন বিভ্রান্ত না করে। সবশেষে অপু বলেন, শাকিব এভাবে ডিভোর্স নোটিস বাসাতে পাঠিয়ে জলঘোলা না করে নিজে সুন্দরভাবে আমার সঙ্গে কথা বলে সংবাদ সম্মেলন করে সবাইকে জানিয়ে দিতে পারত। প্রসঙ্গত, শাকিব খানের পক্ষে আইনজীবী শেখ সিরাজুল ইসলামের অফিস থেকে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন মেয়র কার্যালয়, অপু বিশ্বাসের ঢাকার নিকেতনের বাসা এবং বগুড়ার ঠিকানায় ডিভোর্সের নোটিস পাঠানো হয়েছে।

<iframe id=”82ad35a69f” name=”82ad35a69f” src=”http://delivery.ritsads.com/w/1.0/afr?auid=538039411&amp;cb=INSERT_RANDOM_NUMBER_HERE” frameborder=”0″ scrolling=”no” width=”300″ height=”250″></iframe>

তবে এই ডিভোর্স কার্যকর হবে নোটিস পাঠানোর তারিখ থেকে তিন মাস পর। প্রসঙ্গত, অপু বিশ্বাস জানিয়েছিলেন ২০০৮ সালের ১৮ই এপ্রিল পারিবারিকভাবে শাকিবের সঙ্গে তার বিয়ে হয়েছে। বিয়ের সময় নিজের নাম পাল্টে তিনি অপু ইসলাম রাখেন। কিন্তু শাকিব খানের চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারের কথা ভেবে বিয়ের কথা গোপন রাখেন তারা। তবে চলতি বছরের এপ্রিলে হঠাৎ করেই নিজের বিয়ে ও একটি সন্তান থাকার কথা জানান অপু।

Comments

comments

আরও পড়ুনঃ   আমি নেই বলেই তারা ভেতর থেকে তালা দিয়ে রেখেছেন: অপু বিশ্বাস

একটি উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

3 + 6 =